বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ‘তোমরা কেন আমায় বিশ্বাস করছ না?', রাজ্যকে কিষান নিধির টাকা না দেওয়ায় কেন্দ্রকে প্রশ্ন মমতার
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

‘তোমরা কেন আমায় বিশ্বাস করছ না?', রাজ্যকে কিষান নিধির টাকা না দেওয়ায় কেন্দ্রকে প্রশ্ন মমতার

  • মমতা অভিযোগ করেন, মোদী সরকারের কাছে অচ্ছুত বাংলা।

প্রধানমন্ত্রী কিষান নিধি প্রকল্পের টাকা রাজ্যের হাতে দিচ্ছে না কেন্দ্র। রাজনৈতিক স্বার্থেই রাজ্যকে এড়িয়ে কৃষকদের সরাসরি টাকা দেওয়া হচ্ছে বলে দাবি করলেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সঙ্গে কেন্দ্রকে প্রশ্ন করেন, ‘তোমরা কেন আমায় বিশ্বাস করছ না? কেন রাজ্য সরকারকে বিশ্বাস করছ না?’

বাংলায় প্রধানমন্ত্রী কিষান নিধি প্রকল্প চালু করা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই রাজ্য সরকারের সঙ্গে নরেন্দ্র মোদী সরকারের সংঘাত চলছে। এমনকী বাংলায় সেই প্রকল্প চালু না করার জন্য বিধানসভা ভোটের আগে সরাসরি বাংলাকে নিশানা করেছেন মোদী। পালটা তৃণমূলের তরফে দাবি করা হয়েছে, প্রধানমন্ত্রী কিষান নিধির আগেই কৃষক বন্ধু প্রকল্প চালু করেছে রাজ্য। তাতে রাজ্যের কৃষকরা ঢের বেশি সুবিধা পান। 

সেইসবের মধ্যে কয়েক মাস আগে কেন্দ্রকে চিঠি মমতা লিখে মমতা জানান, প্রধানমন্ত্রী কিষান নিধি প্রকল্পের টাকা রাজ্যের হাতে দেওয়া হোক। তারপর তা কৃষকদের পাঠিয়ে দেবে রাজ্য। সেই প্রসঙ্গে সোমবার মমতা বলেন, ‘দেখুন আপনারা আমাদের টাকাটা পাঠিয়ে দেন। আমরা ওদের পাঠিয়ে দিচ্ছি। আমরাও ডিরেক্ট বেনিফিট স্কিমে (সরাসরি কৃষকদের অ্যাকাউন্টে টাকা পাঠানো হয়) দিই। আমরাও ডিরেক্টই (সরাসরি) পাঠিয়ে দেব। কোনও অসুবিধা নেই। তো যাই হোক, ওরা (কেন্দ্র নিজেরা) ডিরেক্ট করবে এটা। কারণ ওদের উদ্দেশ্য হচ্ছে, সবকিছু ডিরেক্ট করা, রাজ্যকে বাদ দেওয়া। এটা ওদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য। আমি কৃষকদের সঙ্গে রাজনীতি করতে চাই না।’ 

মমতা জানান, সেই বিষয়টি নিয়ে আবারও কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রী নরেন্দ্র তোমরকে ফোন করেছিলেন। সেই কথোপকথন নিয়ে মমতা বলেন, ‘এবারও উনি আমায় বললেন যে আমরা ডিরেক্ট করব। আমি ওদের রাজনৈতিক উদ্দেশ্য বুঝে গেলাম।’ সঙ্গে মমতা জানান, কেন্দ্রের পোর্টালে কৃষকদের (প্রায় ২১ লাখ) নথিভুক্ত করা হচ্ছে। অথচ রাজ্যের বিরুদ্ধে তথ্য না দেওয়ার অভিযোগ তোলা হচ্ছে। অথচ রাজ্যের হাতে কোনও তথ্য দেওয়া হচ্ছে না। মমতার কথায়, ‘এখন আমাদের বলা হচ্ছে যে তুমি ভেরিফিকেশন করছ না, তাই আমরা পাঠাতে পারছি না। এবার আমাদেরও বোকামি হয়েছে। আমরা এই আসল তথ্যটা বুঝতে পারিনি যে রাজনৈতিকভাবে করছে এটা।’

মমতা অভিযোগ করেন, মোদী সরকারের কাছে বাংলা অচ্ছুত। সেজন্য রাজ্য সরকারের পোর্টালে নথিভুক্ত দেখে টাকা দেওয়া হচ্ছে না। সঙ্গে জানান, কেন্দ্রের থেকে তথ্য চেয়ে পাঠানো হয়েছে। তারপর যাচাই করবে রাজ্য। দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়ারও আর্জি জানিয়েছেন। কারণ হিসেবে মমতা বলেন, ‘আমি চাই যে কৃষকরা বাড়তি (প্রধানমন্ত্রী কৃষক নিধি) টাকা পান।’

বন্ধ করুন