বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > East Medinipur: টাকা নিয়েও চাকরি দেননি, তৃণমূল নেতার স্ত্রী ও ছেলেকে বেধড়ক মার প্রার্থীদের
তৃণমূল নেতার ছেলেকে এভাবেই গাছে বেঁধে মারধর করা হচ্ছে। নিজস্ব ছবি।

East Medinipur: টাকা নিয়েও চাকরি দেননি, তৃণমূল নেতার স্ত্রী ও ছেলেকে বেধড়ক মার প্রার্থীদের

  • দীপক মাইতি নামে এক ব্যক্তি জানান, তিনি তার ছোট ভাইয়ের গ্রুপ ডিতে চাকরির জন্য ওই তৃণমূল নেতা ৮ লক্ষ টাকা নিয়েছিলেন। পরে দু-লক্ষ টাকা তিনি ফেরত দিয়েছেন। কিন্তু, তারপর চাকরি তো দূরের কথা টাকাও ফেরত দেওয়া হয়নি। এমনকি থানায় গেলেও অভিযোগ নেওয়া হয়নি।

শিক্ষক নিয়োগে দুর্নীতিতে রাজ্যের প্রাক্তন মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় গ্রেফতার হওয়ার পরেই অস্বস্তিতে তৃণমূল কংগ্রেস। এরপরে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে চাকরি আশ্বাস দিয়ে টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এবার চাকরির আশ্বাস দিয়ে বহু মানুষের কাছ থেকে টাকা নেওয়ার অভিযোগ উঠল পূর্ব মেদিনীপুরের ভগবানপুরের দাপটে তৃণমূল নেতা শিবশঙ্কর নায়েকের বিরুদ্ধে। আর এই অভিযোগে তৃণমূল নেতাকে না পেয়ে তার স্ত্রী ও ছেলেকে বেধড়ক মারধর করলেন চাকরি প্রার্থীরা। এই ঘটনাটি কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা ছাড়িয়েছে।

অভিযোগ, বহু মানুষের কাছ থেকে টাকা নিয়ে চাকরির আশ্বাস দিয়েছিলেন ওই তৃণমূল নেতা। কিন্তু, চাকরি না মেলায় বারবার তার বাড়িতে গিয়ে টাকা ফেরত চান প্রার্থীরা। তাতেও টাকা ফেরত না দেওয়ায় শনিবার বহু চাকরি প্রার্থী ওই তৃণমূল নেতার বাড়িতে হাজির হন। তখন তৃণমূল নেতাকে না পেয়ে তার স্ত্রী এবং ছেলেকে মারধর করেন। শুধু তাই নয়, তৃণমূল নেতার ছেলেকে গাছে বেঁধে মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ। দীপক মাইতি নামে এক ব্যক্তি জানান, তিনি তার ছোট ভাইয়ের গ্রুপ ডিতে চাকরির জন্য ওই তৃণমূল নেতা ৮ লক্ষ টাকা নিয়েছিলেন। পরে দু লক্ষ টাকা তিনি ফেরত দিয়েছেন। কিন্তু, তারপর চাকরি তো দূরের কথা টাকাও ফেরত দেওয়া হয়নি। এমনকি থানায় গেলেও অভিযোগ নেওয়া হয়নি। তৃণমূল নেতা তাদের খুন করার হুমকি দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ। সুরাহা না মেলায় তারা এই বিক্ষোভ করেছেন বলে দাবি করেছেন।

অন্যদিকে, তৃণমূল নেতার স্ত্রীর দাব, যদি তার স্বামী টাকা নিয়ে থাকে তাহলে যেমন তিনি দোষী তেমনি যারা টাকা দিয়েছে তারাও দোষী। তিনি বলেন, ‘যে টাকা নিয়েছে তাকে গিয়ে বলুক। আমরা তো কোনও দোষ করিনি। তাহলে আমাদের কেন মারধর করা হচ্ছে?’ চুলের মুঠি ধরে তাকে মারধর করা হয়েছে বলে অভিযোগ। চাকরিপ্রার্থীদের হুঁশিয়ারি টাকা না দিলে তারা ফের বিক্ষোভ করবেন।

বন্ধ করুন