বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Nadia: পারিবারিক অশান্তির জেরে স্বামীর গায়ে আগুন লাগিয়ে আত্মঘাতী স্ত্রী
আগুনে পুড়ে আত্মঘাতী গৃহবধূ। প্রতীকী ছবি।

Nadia: পারিবারিক অশান্তির জেরে স্বামীর গায়ে আগুন লাগিয়ে আত্মঘাতী স্ত্রী

  • পুলিশ এবং স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কৃষ্ণর সঙ্গে কাকলির বিয়ে হয়েছিল কয়েক বছর আগে তাদের দুই সন্তান রয়েছে। তবে সম্প্রতি বিভিন্ন বিষয়কে কেন্দ্র করে তাদের দাম্পত্য সম্পর্কের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়েছিল। তাদের মধ্যে প্রতিদিনই ঝামেলা লেগে থাকত। গতকালও তাদের মধ্যে ঝগড়াঝাটি হয়েছিল।

পারিবারিক অশান্তির জেরে স্বামীর গায়ে আগুন লাগিয়ে জ্বলন্ত অবস্থাতেই স্বামীকে জড়িয়ে ধরলেন স্ত্রী। ঘটনায় মৃত্যু হয়েছে স্ত্রী কাকলি সরকারের। আশঙ্কাজনক অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন স্বামী কৃষ্ণ সরকার। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ঘটনাটি নদীয়ার তেহট্টের বেতাই দক্ষিণ জিতপুর এলাকার।

পুলিশ এবং স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, কৃষ্ণর সঙ্গে কাকলির বিয়ে হয়েছিল কয়েক বছর আগে তাদের দুই সন্তান রয়েছে। তবে সম্প্রতি বিভিন্ন বিষয়কে কেন্দ্র করে তাদের দাম্পত্য সম্পর্কের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়েছিল। তাদের মধ্যে প্রতিদিনই ঝামেলা লেগে থাকত। গতকালও তাদের মধ্যে ঝগড়াঝাটি হয়েছিল। এরপর গতকাল রাতে স্বামীর গায়ে আগুন লাগিয়ে নিজে আত্মঘাতী হন স্ত্রী। স্থানীয়দের দাবি, স্বামীর সঙ্গেই আত্মঘাতী হওয়ার পরিকল্পনা ছিল কাকলির। গতকাল রাতে খাওয়া-দাওয়া সেরে প্রথমে দুই সন্তানকে পাশের ঘরে রেখে আসেন কাকলি। তার স্বামী অন্য ঘরে ঘুমাচ্ছিলেন। এরপর দুই সন্তানকে ঘুম পাড়িয়ে কাকলি স্বামীর ঘরে আসেন এবং ঘুমন্ত অবস্থাতেই স্বামীর গায়ে কেরোসিন ঢেলে আগুন লাগিয়ে দেন। তারপর স্বামীকে জাপটে ধরে নিজেও আগুনে পুড়ে যান। আগুন লাগার ঘটনার কিছুক্ষণের মধ্যেই পোড়া গন্ধ এবং ধোঁয়ায় ভর্তি হয়ে যায় এলাকা। তখন প্রতিবেশীরা ওই বাড়িতে গিয়ে দেখেন স্বামী এবং স্ত্রী দুজনেই অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় রয়েছেন।

আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে গৃহবধূকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসকরা। ওই মহিলার স্বামীকে কৃষ্ণনগর শক্তিনগর জেলা হাসপাতাল ভর্তি করা হয়েছে। বর্তমানে সেখানে তার চিকিৎসা চলছে। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তার শরীরের ৯০ শতাংশ পুড়ে গুয়ে। কী কারণে এই ঘটনা তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ। মহিলার অগ্নিদগ্ধ দেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে।

বন্ধ করুন