বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > Extra Marital: প্রেমিকের সঙ্গে পালালেন গৃহবধূ, নতুন সংসার পাততে মেয়ের গয়না নিয়ে চম্পট তমলুকে
প্রেমিকের হাত ধরে বাড়ি ছাড়লেন তমলুকের সাউতানচকের গৃহবধূ।

Extra Marital: প্রেমিকের সঙ্গে পালালেন গৃহবধূ, নতুন সংসার পাততে মেয়ের গয়না নিয়ে চম্পট তমলুকে

  • ময়নার এক যুবকের সঙ্গে পালিয়েছেন গৃহবধূ। ওই যুবকও বিবাহিত। তাঁরও ভরা সংসার রয়েছে। দু’‌জনের খোঁজেই তল্লাশি চালানো হচ্ছে। তমলুক–শ্রীরামপুর রোডে সাউতানচকে একটি হোটেল চালাতেন গৃহবধূর স্বামী। হোটেলের পাশাপাশি কাঠের কাজে নানা জায়গায় যেতেন স্বামী।

সংসার পেতেও মন পড়েছিল প্রেমিকের কাছে। তাই স্বামীর সংসার দীর্ঘদিন করা গেল না। প্রেমিকের সঙ্গে নতুন করে সংসার গড়ে তোলার স্বপ্ন দেখতেন গৃহবধূ। অথচ তিনি দুই সন্তানের মা। এই সম্পর্কের টানাপোড়েনে মঙ্গলবার প্রেমিকের হাত ধরে বাড়ি ছাড়লেন তমলুকের সাউতানচকের গৃহবধূ। তাঁর বড় ছেলে, দশম শ্রেণিতে পড়ে। আর মেয়ে অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী। মেয়ের বিয়ের জন্য রাখা গয়নাও নিয়ে গিয়েছেন মা। টাকা ভর্তি জোড়া লক্ষ্মীর ভাঁড়–সহ নগদ ও গয়না নিয়েই স্বামীর ঘর ছেড়েছেন গৃহবধূ।

ঠিক কী ঘটেছে তমলুকে?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, স্বনির্ভর গোষ্ঠীর থেকে দেড় লাখ টাকা ঋণ নেওয়া হয়েছিল। সেই টাকা ছিল গৃহবধূর কাছেই। প্রেমিকের সঙ্গে সংসার পাততে সেই টাকাও নিয়ে গিয়েছেন ওই গৃহবধূ। তাই স্ত্রীকে খুঁজে পেতে তমলুক থানার দ্বারস্থ হয়েছেন অসহায় যুবক স্বামী। তবে মঙ্গলবার রাত পর্যন্ত ওই বধূর কোনও হদিশ মেলেনি।

কী তথ্য পেয়েছে পুলিশ?‌ পুলিশ সূত্রে খবর, ময়নার এক যুবকের সঙ্গে পালিয়েছেন গৃহবধূ। ওই যুবকও বিবাহিত। তাঁরও ভরা সংসার রয়েছে। দু’‌জনের খোঁজেই তল্লাশি চালানো হচ্ছে। তমলুক–শ্রীরামপুর রোডে সাউতানচকে একটি হোটেল চালাতেন গৃহবধূর স্বামী। হোটেলের পাশাপাশি কাঠের কাজে নানা জায়গায় যেতেন স্বামী। তখন ওই গৃহবধূ হোটেল সামলাতেন। এখানেই খেতে আসতেন ময়না থানার খেজুরতলা এলাকার এক যুবক। সেখান থেকেই দু’জনের প্রেম।

ঠিক কী জানাচ্ছে পরিবার?‌ এই বিষয়ে গৃহবধূর স্বামী জানান, তাঁর স্ত্রী সারাক্ষণ ফোনে ব্যস্ত থাকতেন। এই নিয়ে পরিবারে অশান্তিও হতো। কিছুদিন আগে ফোন খারাপ হয়ে গেলে যোগাযোগ বন্ধ হয়ে যায় দু’জনের। ঠিক চারদিনের মাথায় ওই যুবকের পালায় স্ত্রী। অনষদিকে পুলিশের তথ্য বলছে, গত দু’মাসের মধ্যে শুধুমাত্র সাউতানচকেই তিনজন বধূ প্রেমিকের হাত ধরে পালিয়েছেন।

বন্ধ করুন