বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > অন্যান্য জেলা > ধানখেতে দেহ, পুকুরে ভাসছে কাটা মুণ্ড, বাসন্তীতে তরুণী খুনে তদন্তে পুলিশ
তরুণীর মুণ্ডহীন দেহ। (HT_PRINT)

ধানখেতে দেহ, পুকুরে ভাসছে কাটা মুণ্ড, বাসন্তীতে তরুণী খুনে তদন্তে পুলিশ

  • এই ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। খুনের নেপথ্যে কে বা কারা রয়েছে?‌ তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তরুণীর পরিবারের সদস্য ও পরিজনদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পুলিশ খুনের মামলা দায়ের করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, দ্বিতীয় স্বামীর সঙ্গে অশান্তির জেরেই এই খুন হয়েছে। 

মাঠে পড়েছিল তরুণীর মুণ্ডহীন দেহ। আর দু’‌হাত দূরে জলাশয়ে ভাসছিল তাঁর মাথা। হাড়হিম করা এই খুনের ঘটনা দেখে শিউরে উঠেছেন এলাকাবাসী। ঘটনাস্থল দক্ষিণ ২৪ পরগনার বাসন্তী থানার উত্তর মোকামবেড়িয়া অঞ্চলের হাড়ভাঙি এলাকায়। পুলিশ দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তে পাঠিয়েছে। পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করেছেন এসডিপিও।

ঠিক কী ঘটেছে বাসন্তীতে?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, মাঝরাতে বাসন্তীর একটি ধানখেতে দেহ পড়ে থাকতে দেখেন স্থানীয়রা। তখন বিষয়টি নিয়ে শোরগোল পড়তেই মানুষজন জড়ো হয়ে যান। সবার নজরে আসে এক মহিলার মুণ্ডহীন দেহ। পুলিশে খবর দেওয়া হলে দেহটি উদ্ধার করা হয়। তার পরই এলাকায় তল্লাশি চালায় পুলিশ। আর পুকুর থেকে উদ্ধার হয় কাটা মুণ্ড।

ঠিক কী তথ্য পেল পুলিশ?‌ পুলিশ সূত্রে খবর, পারিবারিক অশান্তির জেরে এই খুন বলে মনে করা হচ্ছে। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এলে সব জানা যাবে। মৃত তরুণীর নাম তমিনা সর্দার মোল্লা (২৫)। তমিনার কয়েক বছর আগে বিয়ে হয়। তারপর বিবাহবিচ্ছেদও হয়ে যায়। তখন বাপের বাড়িতে চলে আসেন তমিনা। তবে আবার একটি বিয়ে করেন তমিনা। এই দ্বিতীয় স্বামীরও আর একটি বিয়ে ছিল। কিথুদিন পর তিনি প্রথমপক্ষের স্ত্রীকে নিয়ে দিল্লি চলে যান। তখন তমিনা বারবার দ্বিতীয় স্বামীর সঙ্গে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেন। কিন্তু সে বিবাহবিচ্ছেদ করার কথা বলে। তারপরেই এভাবে দেহ মিলল।

এই ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে। খুনের নেপথ্যে কে বা কারা রয়েছে?‌ তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তরুণীর পরিবারের সদস্য ও পরিজনদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। পুলিশ খুনের মামলা দায়ের করে ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, দ্বিতীয় স্বামীর সঙ্গে অশান্তির জেরেই এই খুন হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে যুক্তদের খোঁজে তল্লাশি শুরু হয়েছে।

বন্ধ করুন