বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > ‘শিল্পের দিক থেকে কিছুটা পিছিয়ে,’ বামেদের দুষে বললেন ফিরহাদ হাকিম

‘শিল্পের দিক থেকে কিছুটা পিছিয়ে,’ বামেদের দুষে বললেন ফিরহাদ হাকিম

ফাইল ছবি: পিটিআই (PTI)

কলকাতায় টয় এক্সিবিশনের অনুষ্ঠানে ভাষণ চলাকালীন বলেন, 'ইন্ডাস্ট্রির দিক থেকে আমরা কিছুটা পিছিয়ে রয়েছি। কারণ ৩৪ বছর ধরে যে শিল্প হয়েছে, তারা পালিয়ে গিয়েছে এখান থেকে। তারপর আমাদের ১০ বছর লেগে গিয়েছে আপনাদের আশ্বস্ত করতে, ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধার করতে।'

রাজ্যে শিল্পের আকাল। এই নিয়ে লাগাতার বিরোধীদের কটাক্ষ সইতে হয় পশ্চিমবঙ্গ সরকারকে। শিল্প আনার চেষ্টা করছেন বলে বারবার আশ্বস্তও করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। কিন্তু এবার শিল্পের বেহাল দশার কথা কার্যত স্বীকারই করে নিলেন রাজ্যের ক্যাবিনেট মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। কলকাতায় টয় এক্সিবিশনের অনুষ্ঠানে ভাষণ চলাকালীন বলেন, 'ইন্ডাস্ট্রির দিক থেকে আমরা কিছুটা পিছিয়ে রয়েছি। কারণ ৩৪ বছর ধরে যে শিল্প হয়েছে, তারা পালিয়ে গিয়েছে এখান থেকে। তারপর আমাদের ১০ বছর লেগে গিয়েছে আপনাদের আশ্বস্ত করতে, ভাবমূর্তি পুনরুদ্ধার করতে।'

তবে ছবি বদলাচ্ছে, আশাবাদী ফিরহাদ হাকিম। বর্তমান সরকারের সাফল্যের উল্লেখ করে তিনি বলেন, এখানে বনধ নেই। এখানে লাল ঝান্ডা নেই। এখন এমন একটা জায়গা তৈরি হয়েছে, যেখানে লোকজন বলছে যে, হ্যাঁ, এখানে ব্যবসা করা যায়। কাজ করার মতো পরিবেশ রয়েছে। এখন আমরা আবার রাজ্যে ইন্ডাস্ট্রি বসাচ্ছি। আরও পড়ুন: ‘‌এখানে এনআরসি হতে দেব না’‌, মেঘালয়ের জনসভা থেকে সুর চড়ালেন অভিষেক

শুধু বড় শিল্পই নয়, কোনও রাজ্যের কর্মসংস্থানের পিছনে ক্ষুদ্র ও মাঝারি শিল্পেরও ভূমিকা থাকে অপরিসীম। এদিন সেই বিষয়টিও উল্লেখ করেন ফিরহাদ হাকিম। তিনি বলেন, বড় বড় শিল্প যেগুলি রয়েছে, সেগুলি ঠিক আছে। কিন্তু সবথেকে বেশি কর্মসংস্থান তৈরি করে ক্ষুদ্র শিল্প। আমিও একটি প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রি চালাই ৩৮ বছর ধরে। আমিও ক্ষুদ্র শিল্পের ভাল-মন্দ বুঝি। সেটি তো এখনও চলছে, সেই দিয়েই সংসার চলছে। কিন্তু সামাজিক ও অন্যান্য কাজে ব্যস্ত থাকার কারণে ঠিকভাবে সময় দিতে পারিনি, তাই সেভাবে বাড়েনি। আমার অন্যান্য বন্ধুদের ব্যবসা ভাল বেড়ে গিয়েছে।

এদিন সৌজন্যমূলক রাজনীতির পরিচয়ও দেন ফিরহাদ হাকিম। কেন্দ্রীয় সরকারের প্রশংসা করে তিনি বলেন, এই টয় ইন্ডাস্ট্রি এমন, পুরো ভারতের যে চাহিদা তা পূরণ করত চিন। আমি কেন্দ্রীয় সরকারকে ধন্যবাদ দিতে চাই যে চিন থেকে আমদানির পলিসির রয়েছে তার উপর কিছু নিয়ন্ত্রণ জারি করেছে‌। ১২ লাখ কোটি টাকার যদি ব্যবসা করতে হয়, তাহলে এখানে আমাদেরকে ইন্ডাস্ট্রি বানাতে হবে। আমার মতে দেশের পূর্ব অংশের যে উন্নয়ন… তা অনেক উপরে যাবে।' আরও পড়ুন: Skyroot: সফলভাবে রকেট পাঠাল স্কাইরুট, নেপথ্যে IIT খড়গপুরের প্রাক্তনী

শুক্রবার থেকে কলকাতার নেতাজি ইনডোর স্টেডিয়ামে শুরু টয় এক্সিবিশন হয়েছে। দেশ-বিদেশে বিভিন্ন সংস্থার হাজারো রকমের খেলনা দেখতে পাবেন এই প্রদর্শনীতে।

বন্ধ করুন