বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > আক্রান্ত নাইসেড প্রধান, এনআরএস থেকে স্বাস্থ্যভবনে বাড়-বাড়ন্ত করোনা
 কলকাতায় লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। ফাইল ছবি : পিটিআই  (PTI)
 কলকাতায় লাফিয়ে বাড়ছে করোনা সংক্রমণ। ফাইল ছবি : পিটিআই  (PTI)

আক্রান্ত নাইসেড প্রধান, এনআরএস থেকে স্বাস্থ্যভবনে বাড়-বাড়ন্ত করোনা

  • এনআরএস-এ শতাধিক, স্বাস্থ্যভবনে পঞ্চাশ জন কোভিড পজিটিভ, ত্রস্ত তিলোত্তমা।

ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব কলেরা অ্যান্ড এন্টেরিক ডিজিজেস বা নাইসেডে এযাবৎকালে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত বিভিন্ন গবেষণা হয়েছে। এবার সেখানের ডিরেক্টর শান্তা দত্ত করোনা আক্রান্ত হলেন। উল্লেখ্য, এই নিয়ে ২ বার আক্রান্ত হলেন শান্তা দত্ত। একবার ভ্যাকসিন নেওয়ার আগে, আরেকবার ভ্যাকসিন নেওয়ার পর আক্রান্ত হলেন নাইসেড প্রধান। এদিকে, ক্রমাগত করোনা বেড়ে চলার কারণে ত্রস্ত কল্লোলিনী তিলোত্তমা। ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যমন্ত্রক জানিয়েছে যে, কলকাতার করোনা পজিটিভিটি হার সারা দেশে সবচেয়ে বেশি। কলকাতার পজিটিভিটির হার ৪৪.৫ শতাংশে দাঁড়িয়েছে।

এদিকে, ওমিক্রনের বাড়বাড়ন্তে ত্রস্ত কল্লোলিনী তিলোত্তমা। শহরের একাধিক হাসপাতাল ও নার্সিংহোমে চিকিৎসক থেকে নার্স , স্বাস্থ্যকর্মীদের করোনা পজিটিভ হওয়ার খবর উঠে আসছে। চিত্তরঞ্জন সেবা সদন হাসপাতালে বুধবার ৬২ জন চিকিৎসক করোনা আক্রান্ত হন। একই হাসপাতালে ২০ জন নার্সও কোভিড পজিটিভ বলে জানা গিয়েছে। এই হাসপাতালে মোট ১০৩ জন করোনা আক্রান্ত হওয়ায় , হাসপাতালের পরিষেবা নিয়ে উদ্বেগ তৈরি হচ্ছে। তবে সেখানে রোগীরা যাতে সেবা পান,তার জন্য ৮ জন চিকিৎসককে সেখানে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে স্বাস্থ্য়ভবন।

এদিকে, করোনার দানবীয় প্রকোপ থেকে রক্ষা পায়নি কলকাতার স্বাস্থ্যভবন। স্বাস্থ্যভবনের ৫ আধিকারিক সহ ৫০ জন কর্মী করোনা পজিটিভ বলে জানা গিয়েছে। করুণ পরিস্থিতি এনআরএস মেডিক্যাল কলেজে। ইতিমধ্যেই এনআরএস-এর অধ্যক্ষ করোনা পজিটিভ বলে জানা গিয়েছে। এছাড়াও সেখানে চিকিৎসক স্বাস্থ্যকর্মী থেকে শুরু করে নার্স, ছাত্র সহ অনেকেই করোনা পজিটিভ। ৩৬০ জনের টেস্টিংএর পর সেখানে ১৭৮ জন করোনা পজিটিভ হয়েছেন।

এদিকে, কোন্দ্রীয় স্বাস্থ্যভবনের তরফে জানানো হয়েছে, এই মুহূর্তে দেশে পজিটিভির হার ৫ শতাংশ। সেখানে কলকাতার পজিটিভিটির হার ৪৪.৫ শতাংশ। কেন্দ্র জানিয়েছে, যে কলকাতার পজিটিভির হার সারা দেশে সবচেয়ে বেশি। এদিকে, উদ্বেগ রয়েছে দিল্লি ও মহারাষ্ট্র ঘিরে। মহারাষ্ট্রে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা গত ৮ দিনে বেড়েছে ৮ গুন, দিল্লিতে তা বেড়েছে ৯ গুন। যদিও দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল জানিয়েছেন যে, এই পরিস্থিতিতে দিল্লিবাসী যেন আতঙ্কিত না হন। অক্সিজেন বেড সহ একাধিক হাসপাতালে বেড ঘিরে জটিলতা এখনও উঠে আসেনি বলে তিনি আশ্বাসবার্তা দেন। এদিকে, কলকাতায় যেভাবে সংক্রমণ ছড়াচ্ছে , তা রুখতে একাধিক পদক্ষেপ নিয়েছে মমতা সরকার। তবে মানুষকে আরও সাবধানতা অবলম্বনের বার্তা দিয়ে চলেছেন চিকিৎসকরা।

বন্ধ করুন