বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > মানবাধিকার কমিশনের রিপোর্টের পর পদত্যাগ করা উচিত সরকারের: শুভেন্দু
অর্জুন সিংয়ের বাড়িতে শুভেন্দু অধিকারী। 
অর্জুন সিংয়ের বাড়িতে শুভেন্দু অধিকারী। 

মানবাধিকার কমিশনের রিপোর্টের পর পদত্যাগ করা উচিত সরকারের: শুভেন্দু

  • রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, এই সরকারের চাকরি দেওয়ার ক্ষমতা নেই, তাই সন্ধ্যাবেলায় সাংবাদিক বৈঠক করে ঠেলাগাড়ি, হাড়ি, জাল এসব বিলি করছে। ওদিকে একের পর এক জুটমিল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে রাজ্যে।

রাজ্যে ভোট পরবর্তী হিংসা নিয়ে রিপোর্টে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন যা বলেছে তার পর এই সরকারের আর ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উত্তর ২৪ পরগনার জগদ্দলে সাংসদ অর্জুন সিংয়ের সঙ্গে বৈঠক করে বেরিয়ে এমনই মন্তব্য করলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীকে তাঁর কটাক্ষ, চাকরি তো দিতে পারেন না, ঠালাগাড়ি, হাড়ি আর জাল বিতরণ করছেন।

এদিন শুভেন্দুবাবু বলেন, জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে, বাংলায় আইনের শাসন নেই। শাসকের আইন আছে। এই এক লাইনে রাজ্য সরকারকে শেষ করে দিয়েছে। আমাদের আদালতের ওপরে ভরসা রয়েছে। বিজেপি বা কেন্দ্রীয় সরকারের নির্দেশে এই তদন্ত হয়নি। আমাদের বিশ্বাস বাংলার মানুষকে বাঁচাতে আদালত পদক্ষেপ করবে।

সঙ্গে রাজ্য সরকারকে কটাক্ষ করে তিনি বলেন, এই সরকারের চাকরি দেওয়ার ক্ষমতা নেই, তাই সন্ধ্যাবেলায় সাংবাদিক বৈঠক করে ঠেলাগাড়ি, হাড়ি, জাল এসব বিলি করছে। ওদিকে একের পর এক জুটমিল বন্ধ হয়ে যাচ্ছে রাজ্যে।

বলে রাখি, রাজ্যে ভোটপরবর্তী হিংসা নিয়ে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের রিপোর্ট বৃহস্পতিবার প্রকাশ্যে এনেছে আদালত। ৫০ পাতার সেই রিপোর্টে কমিশনের তরফে স্পষ্ট জানানো হয়েছে, রাজ্যে আইনের শাসন নেই, শাসকের আইন চলছে। রাজ্যে ভোট পরবর্তী হিংসার একাধিক ঘটনার CBI তদন্ত হওয়া উচিত। ভিনরাজ্যে ফাস্ট ট্র্যাক আদালত তৈরি করে বিচার হওয়া উচিত মামলাগুলির। ঘটনার তদন্তে অভিজ্ঞ IPS-দের নিয়ে গঠন করা উচিত SIT.

 

বন্ধ করুন