মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

Sixth Pay Commission: 'টাকা নেই, এখন DA দিতে পারব না', বললেন মমতা

  • মুখ্যমন্ত্রী বলেন, 'কেন্দ্রের সঙ্গে আমাদের তুলনা করলে হবে না। কেন্দ্রের কাছে একটা রিজার্ভ ব্যাঙ্ক আছে। টাকার হুন্ডি আছে। তাই কেন্দ্র বছরে দু’বার ডিএ দিতে পারলেও আমরা পারি না।'

বকেয়া মহার্ঘ ভাতা (ডিএ) নিয়ে ক্রমশ ক্ষোভ বাড়ছে রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মধ্যে। তবে সেই ১৭ শতাংশ বকেয়া মহার্ঘ ভাতা দিতে যে আরও কিছুটা সময় লাগবে তা স্পষ্ট করে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন : New Tax Rate vs Old Tax Rate with deductions- E-Calculator ব্যবহার করে দেখুন

রাজ্য সরকারি কর্মচারীদের মহার্ঘ ভাতা কেন মেটানো হয়নি, তা নিয়ে শুক্রবার বিধানসভায় সরব হন বিরোধীরা। জবাবে মুখ্যমন্ত্রী জানান, ষষ্ঠ বেতন কমিশনের সুপারিশ মেনে নিয়েছে নবান্ন। ইতিমধ্যে ১২৫ শতাংশ ডিএ মিটিয়েও দেওয়া হয়েছে। এমনকী তৃণমূল সরকার ক্ষমতায় আসার আগে ৯০ শতাংশ মহার্ঘ ভাতা বাকি ছিল বলে দাবি করেন মমতা।

আরও পড়ুন : New Tax Rate vs Old Tax Rate with Deductions- চাকুরিজীবীদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা

তবে একলপ্তে পুরো বকেয়া মহার্ঘ ভাতা মেটানোর জন্য রাজ্যের হাতে যে টাকা নেই, তা সরাসরি জানিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, 'আমরা যখনই সম্ভব হয়েছে, তখনই মহার্ঘ ভাতা মিটিয়ে দিয়েছি। কয়েকদিন আগেই সরকারি কর্মচারীদের টাকা বাড়ানো হয়েছেে। টাকা না থাকায় এখন আর পারব না। টাকা এলে ধাপে ধাপে বকেয়া ডিএ দেওয়া হবে।'

আরও পড়ুন : New Tax Rate vs Old Tax rate with deductions-চাকরি করুন বা ব্যবসা, কোনটা বাছা উচিত, জেনে নিন

কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীদের সঙ্গে রাজ্যের সরকারি কর্মীদের মহার্ঘ ভাতার পার্থক্যের প্রসঙ্গ নিজেই উত্থাপন করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, 'কেন্দ্রের সঙ্গে আমাদের তুলনা করলে হবে না। কেন্দ্রের কাছে একটা রিজার্ভ ব্যাঙ্ক আছে। টাকার হুন্ডি আছে। তাই কেন্দ্র বছরে দু’বার ডিএ দিতে পারলেও আমরা পারি না।'

আরও পড়ুন : Budget 2020: নয়া করনীতিতেও কোন বিনিয়োগের ওপর ছাড় মিলবে?

কেন্দ্রের বিরুদ্ধে আর্থিক বঞ্চনার অভিযোগও তোলেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি দাবি করেন, রাজ্যের প্রাপ্য ৩৮ হাজার কোটি টাকা এখনও দেয়নি কেন্দ্র। এছাড়াও সংশোধিত বাজেটের ১১ হাজার কোটি টাকাও দেয়নি মোদী সরকার। ফলে রাজ্যের ভাঁড়ারে টাকার টান রয়েছে।

আরও পড়ুন : আধার-প্যান লিঙ্ক না করলে বাড়বে বিড়ম্বনা, জানাল আয়কর দফতর


বন্ধ করুন