ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

15th Finance Commission সুপারিশ: অতিরিক্ত ১১ হাজার কোটি বরাদ্দ পশ্চিমবঙ্গের খাতে

অর্থ কমিশনের অন্তর্বর্তী রিপোর্ট সংসদে পেশ করলেন নির্মলা সীতারামন।

১৫তম অর্থ কমিশনের রিপোর্টে পশ্চিমবঙ্গকে অতিরিক্ত ১০,৯১৪ কোটি টাকা দেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে। কেন্দ্রীয় করের মোট ৪১ শতাংশ এবার রাজ্যদের মধ্যে ভাগ করার সুপারিশ দিয়েছে অর্থ কমিশন।রাজ্যগুলি যা অর্থ পাবে, তার মধ্যে ৭.৫১৯ শতাংশ পাবে পশ্চিমবঙ্গ। শুধু উত্তর প্রদেশ, বিহার ও মধ্যপ্রদেশ এর থেকে বেশি অর্থ পাবে। ১৪ তম অর্থ কমিশনে মোট নগদের ৭.৩১৪ শতাংশ পেয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ। ২০২০-২১ সাল থেকে ১৫তম অর্থ কমিশনের সুপারিশ লাগু হবে।


কী হিসাবে টাকা ভাগ করা হবে, সেই ফর্মুলাও বদলেছে এনকে সিংয়ের নেতৃত্বাধীন কমিশন। রাজ্যের জনসংখ্যাকে আগে ১৭.৫ শতাংশ ওয়েটেজ দেওয়া হত। এবার ১৫ শতাংশ ওয়েটেজ দেওয়া হয়েছে। মূলত দক্ষিণের রাজ্যগুলির আপত্তিতে এই বদল করা হয়েছে।

নির্মলা সীতারামন শনিবার জানান কমিটির রিপোর্টের অধিকাংশই তারা গ্রহণ করেছেন। নয়া সুপারিশে শতাংশের বিচারে সবচেয়ে লাভবান হয়েছে অরুনাচল প্রদেশ, নাগাল্যান্ড, মণিপুর, পঞ্জাব ও মেঘালয়। সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত অন্ধ্র প্রদেশ, অসম, তেলেঙ্গানা, কেরালা, কর্নাটক। সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত কর্নাটক, গত কমিশনের তুলনায় প্রায় দুই হাজার কোটি টাকা কম অর্থাত্ ২২.৫ শতাংশ হ্রাস রাজ্যের খাতে অর্থ। ইতমধ্যেই এই নিয়ে সরব হয়েছে কর্নাটকের কংগ্রেস। অর্থ কমিশনের সুপারিশে অখুশি কেরালার অর্থমন্ত্রীও। সুপারিশ অনুযায়ী ১১৬৪ কোটি টাকা কম পাবে কেরালা। কেন্দ্রীয় বঞ্চনা নিয়ে ধারাবাহিক ভাবে নালিশ করলেও ১৫তম কমিশনের রিপোর্টে মোটের ওপর লাভ হচ্ছে বাংলার।



বন্ধ করুন