বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > বিশ টাকার বাংলা মদ বিক্রি হবে না, শীতের মরশুমে বাড়ছে চোলাইয়ের ঝোঁক
 (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য মিন্ট)
 (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য মিন্ট)

বিশ টাকার বাংলা মদ বিক্রি হবে না, শীতের মরশুমে বাড়ছে চোলাইয়ের ঝোঁক

  • কলকাতা হাইকোর্টে মামলা হয়ে যাওয়ায় পাউচ প্যাকে ‘বিশ টাকার বাংলা মাল’ সরবরাহ থেকে আপাতত পিছিয়ে এল আবগারি দফতর।

শীত শীত ভাব এসেছে বঙ্গে। তাই ২০ টাকায় দু’‌পাত্র ঢালা যাবে অঙ্গে ভাবা গিয়েছিল। সুরাপ্রেমিরা হাঁকপাক করছিল কবে আসবে ২০ টাকার বাংলা মাল!‌ কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে জলে জল ঢেলে দেওয়া হয়েছে। কারণ দরপত্র ডেকে উৎপাদক বাছাই শুরু হয়েছিল। ঠিক ছিল, ডিসেম্বর মাসের মাঝামাঝি বিশ টাকার পাউচ প্যাকে মহুয়ার গন্ধ মেশানো দিশি মদ বাজারে ছাড়া হবে। কিন্তু কলকাতা হাইকোর্টে মামলা হয়ে যাওয়ায় পাউচ প্যাকে ‘বিশ টাকার বাংলা মাল’ সরবরাহ থেকে আপাতত পিছিয়ে এল আবগারি দফতর। আর তাতেই গোঁসা করেছে সুরাপ্রেমিরা।

সরকারি সূত্রে খবর, চোলাইয়ের দামে যদি সরকারি মদ আনা যায়, তা হলেই চোলাই কারবারিদের রোখা যাবে। আর বিষ–মদ খেয়ে মৃত্যু ঠেকানো যাবে। কিন্তু ৬০ ডিগ্রির দিশি মদের বোতলের দাম এখন ১০০ টাকার বেশি। একই পরিমাণ চোলাই মদ মেলে অর্ধেক দামে। তাই আবগারি দফতর বাজার–চলতি দিশি মদের চেয়ে ৭০ ডিগ্রির দিশি মদ বাজারে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এখন জঙ্গলমহলে চা–বাগানে এই মদ কিছু কিছু বিক্রি হয় বোতলে। দাম ৮০–৯০ টাকা।

কিন্তু পাউচ প্যাকে দিশি মদ বিক্রিতে প্রবল প্রতিক্রিয়া হয়। কোনও কোনও মহল অভিযোগ তোলে, সরকার মদ্যপানে উৎসাহ দিচ্ছে। দরপত্র চাওয়ার বিষয়টিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাইকোর্টে যায় একটি বৃহৎ মদ উৎপাদক সংস্থা। তাদের পাউচ প্যাকের কারবারের বাইরে রাখতেই সরকার এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে আদালতে জানায় তারা। এই চাপের মুখে পড়েই আবগারি দফতর বিশ টাকার পাউচ থেকে সরে আসতে বাধ্য হচ্ছে।

বন্ধ করুন