শুক্রবার তাণ্ডবের পর
শুক্রবার তাণ্ডবের পর

সাগর দত্ত মেডিক্যাল কলেজে ভাঙচুরের ঘটনায় গ্রেফতার রোগীর ৩ আত্মীয়

  • চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলে আইসোলেশন ওয়ার্ড-সহ একাধিক ওয়ার্ডে ভাঙচুর চালায় রোগীর আত্মীয়রা।

সাগর দত্ত মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে রোগীমৃত্যুর জেরে ভাঙচুরের ঘটনায় ৩ জনকে গ্রেফতার করল বেলঘরিয়া থানার পুলিশ। শুক্রবার কামারহাটি এলাকা থেকেই গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁদের। ধৃতদের বিরুদ্ধে সরকারি সম্পত্তি নষ্ট ও সরকারি কর্মীদের কাজে বাধা দেওয়ার ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ। 

শুক্রবার সাগর দত্ত মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ডে আখতারি বেগম নামে এক মহিলার মৃত্যু হয়। এর পর চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ তুলে আইসোলেশন ওয়ার্ড-সহ একাধিক ওয়ার্ডে ভাঙচুর চালায় রোগীর আত্মীয়রা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ পৌঁছলে পুলিশ কর্মীদের ওপরেও হামলা করা হয় বলে অভিযোগ। এর পর হাসপাতালে মোতায়েন করতে হয় ব়্যাফ।

হাসপাতাল সূত্রের খবর, ওই প্রৌঢ়া বৃহস্পতিবার জ্বর ও শ্বাসকষ্টের মতো শারীরিক সমস্যা নিয়ে ভর্তি হয়েছিলেন। শুক্রবার সকাল থেকে তাঁর শারীরিক পরিস্থিতির অবনতি হতে শুরু করে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তাঁকে বাঁচানো যায়নি। এর পরই হাসপাতালের আইসোলেশন ওয়ার্ড-সহ একাধিক বিভাগে ভাঙচুর শুরু করেন রোগীর আত্মীয়রা। চেয়ার-টেবিল-যন্ত্রপাতি, জানলার কাচ যথেচ্ছ ভাঙচুর করা হয়।

বলে রাখি, বৃহস্পতিবারই হাসপাতালের ২ পরিচ্ছন্নতা কর্মীর দেহে করোনা সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এর জেরে হাসপাতালের ২০ জন চিকিৎসক-সহ মোট ৩৬ জনকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে। যার প্রভাব পড়েছে চিকিৎসা ব্যবস্থায়। এর জেরে বন্ধ রয়েছে হাসপাতালের রেডিওলজি ও কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগ। করোনার চিকিৎসায় যে দুই বিভাগের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। 

 

বন্ধ করুন