বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে হুমকি চিঠি পাঠিয়ে গ্রেফতার চিকিৎসকসহ ৩
ধৃত ৩ অভিযুক্ত।
ধৃত ৩ অভিযুক্ত।

আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে হুমকি চিঠি পাঠিয়ে গ্রেফতার চিকিৎসকসহ ৩

  • তদন্তে নেমে শরৎ বোস রোড পোস্ট অফিসের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে কয়েকজন সন্দেহভাজনকে চিহ্নিত করেন গোয়েন্দারা। সেই ব্যক্তিদের ছবি দেখানো হয় শহরের বিভিন্ন টাইপিস্টদের।

রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে হুমকি চিঠি দেওয়ার অভিযোগে অরিন্দম সেন নামে এক চিকিৎসককে গ্রেফতার করল পুলিশ। সঙ্গে গ্রেফতার করা হয়েছে তাঁর গাড়ির চালক ও এক টাউপিস্টকে। যাদবপুরের কেপিসি মেডিক্যাল কলেজের ওই চিকিৎসক জানিয়েছেন, মানসিক হতাশা থেকে এই কাজ করেছেন তিনি।

গত ২৬ অক্টোবর কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য তথা আলাপনবাবুর স্ত্রী সোনালি বন্দ্যোপাধ্যায়ের কাছে স্পিডপোস্টে একটি চিঠি আসে। তাতে দাবি করা হয়, ‘আপনার স্বামীকে খুন করা হবে। আপনার স্বামীকে কেউ বাঁচাতে পারবে না।’ সঙ্গে সঙ্গে তদন্তে নামে লালবাজার। জানা যায়, ওই রকম চিঠি পেয়েছেন আরও অন্তত ৭ জন। আর প্রতিটি চিঠিই শরৎ বসু রোড পোস্ট অফিস থেকে পোস্ট করা।

তদন্তে নেমে শরৎ বোস রোড পোস্ট অফিসের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে কয়েকজন সন্দেহভাজনকে চিহ্নিত করেন গোয়েন্দারা। সেই ব্যক্তিদের ছবি দেখানো হয় শহরের বিভিন্ন টাইপিস্টদের। বিজন সেতুর কাছে বিজয়কুমার কয়াল নামে এক টাইপিস্ট রমেশ সাউ নামে অরিন্দম সেনের গাড়ির চালককে সনাক্ত করেন। জানান, ওই ব্যক্তি মাঝে মাঝে এসে এরকম চিঠি টাইপ করিয়ে নিয়ে যেতেন। সেজন্য চিঠি প্রতি ৫০ – ১০০ টাকা নিতেন তিনি। এর পরই রাজা রামমোহন রায় রোডের বাড়ি থেকে চিকিৎসককে গ্রেফতার করে পুলিশ।

তদন্তে নেমে গোয়েন্দারা জানতে পেরেছেন, চিঠিতে প্রেরক হিসাবে যে গৌরহরি মিশ্রের নাম লেখা হয়েছে তিনি নির্দোষ। রাজাবাজার সায়েন্স কলেজের ওই কর্মী অরিন্দমবাবুর প্রতিবেশী। তাঁর সঙ্গে কিছু বিষয়ে বিবাদ ছিল চিকিৎসকের। হেনস্থা করতেই তাঁর নাম প্রেরক হিসাবে চিঠিতে লিখেছিলেন অরিন্দমবাবু।

 

বন্ধ করুন