রাজপথে সেনা
রাজপথে সেনা

বলা মাত্রই কাজ শুরু, আমফান বিপর্যস্ত কলকাতার রাস্তায় নামল সেনা

পাঁচ কলাম সেনা নামল রাস্তায়।

পশ্চিমবঙ্গের স্বরাষ্ট্রদফতরের অনুরোধের কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই কলকাতার রাস্তায় নামল সেনা। একই সঙ্গে উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনাতেও কাজে নেমে পড়েছে তারা।  যুদ্ধকালীন তত্পরতায় ভাঙা ডাল প্রভৃতি সরিয়ে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার কাজে নেমে পড়েছে ভারতীয় সেনা। আমফানে এই তিন জেলাই সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল। 

আপাতত পাঁচ কলাম সেনা রাস্তায় নেমেছে। প্রত্যেকটি কলামে থাকে ৩৫ জন করে সেনা। এর মধ্যে আছে জুনিয়র কমিশনড অফিসার ও অফিসাররাও। কলকাতায় টালিগঞ্জ, বালিবঞ্জ ও বেহালায় সেনা নামানো হয়েছে। নিউ টাউন ও ডায়মন্ড হারবারেও মোতায়েন করা হয়েছে সেনাকে। 

শনিবার সকালে সেনাবাহিনীকে আমফান উদ্ধারকার্যে যোগ দেওয়ার জন্য রাজ্যসরকারের তরফ থেকে আর্জি জানান হয়। প্রায় তিন দিন কেটে গেলেও পরিস্থিতি এখনও স্বাভাবিক হয়নি। বহু জায়গায় আলো নেই, জল নেই, গাছ ও ইলেকট্রিকের পোল পড়ে আছে। তাই আর কালবিলম্ব না করে রাস্তায় নামল সেনা। 

দুপুরের টুইটে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে থাকা পশ্চিমবঙ্গ স্বরাষ্ট্র দফতরের তরফে লেখা হয়েছিল, ‘পশ্চিমবঙ্গ সরকার সামগ্রিক ভাবে দিন রাত সর্বশক্তি প্রয়োগ করে ন্যূনতম পরিষেবা স্বাভাবিক করতে কাজ করছে। সেনাবাহিনীকে ডাকা হয়েছে। NDRF ও SDRF কে মোতায়েন করা হয়েছে। রেল, বন্দর ও বেসরকারি ক্ষেত্রকে জনবল ও যন্ত্র দিয়ে সাহায্য করতে বলা হয়েছে।’

টুইটে আরও বলা হয়েছিল, ‘পানীয় জল ও নিকাশি ব্যবস্থাকে সবার আগে সচল করতে হবে। যে সব জায়গায় পানীয় জল নেই সেখানে PHE-কে জলের পাউচ সরবরাহ করতে বলা হয়েছে। প্রয়োজন মেটাতে ভাড়া করা হচ্ছে জেনারেটর। বিভিন্ন দফতরের কয়েকশ দল ভেঙে পড়া গাছ কাটতে নামানো হয়েছে। যা বিদ্যুৎ পরিষেবা ফেরানোর প্রথম ধাপ। লকডাউন সত্বেও WBSEDCL ও CESE-কে সর্বোচ্চ লোকবল মোতায়েন করতে বলা হয়েছে। পুলিশকে সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে।’

 

বন্ধ করুন