ফাইল ছবি
ফাইল ছবি

২১শে পাঠানোর নমুনার রিপোর্ট এল ২৫শে, কাকদ্বীপে করোনায় আক্রান্ত ৩

  • কাকদ্বীপে আক্রান্তদের ৩ জনের বয়সই ৭০ বছরের বেশি। এদের ২ জন কাকদ্বীপ থানা এলাকার বামনডাঙা – রথতলা ও বৈকুণ্ঠপুরের বাসিন্দা।

দক্ষিণ ২৪ পরগনার কাকদ্বীপে খোঁজ মিলল করোনা রোগীর। এসঙ্গে ৩ জনের দেহে শনাক্ত হয়েছে জীবাণু। যার জেরে আতঙ্ক ছড়িয়েছে গোটা মহকুমা জুড়ে। এর জেরে এখনো পর্যন্ত ১১০ জনকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠিয়েছে জেলা প্রশাসন।

কাকদ্বীপে আক্রান্তদের ৩ জনের বয়সই ৭০ বছরের বেশি। এদের ২ জন কাকদ্বীপ থানা এলাকার বামনডাঙা – রথতলা ও বৈকুণ্ঠপুরের বাসিন্দা। একজন হারউড পয়েন্ট উপকূল থানার গোবিন্দপুরের বাসিন্দা। এরা ১৪ – ১৬-ই এপ্রিলের মধ্যে জ্বর, শর্দি-কাশির মতো উপসর্গ নিয়ে এরা কাকদ্বীপ মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। তাঁদের আইসোলেশন ওয়ার্ডে রেখে চিকিৎসা চলছিল। ২১ এপ্রিল তাঁদের লালারসের নমুনা পরীক্ষায় পাঠানো হয়। তাতে তিন জনেরই রিপোর্ট পজিটিভ এসেছে। এর পর তড়িঘড়ি এদের নিউটাউনের করোনা হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এই তিন রোগীর সংস্পর্শে আসায় তাঁদের পরিজন-সহ মোট ১১০ জনকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার মুখ্যস্বাস্থ্য আধিকারিক দেবাশিস রায়। ওই রোগীদের চিকিৎসার কাজে নিযুক্ত প্রত্যেকের লালারসের নমুনা পরীক্ষা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

কাকদ্বীপের প্রত্যন্ত এলাকায় কী করে করোনা পৌঁছল তা নিয়ে চিন্তিত জেলা প্রশাসন। ওই খবর জারির পরই কাকদ্বীপ শহর ও মহকুমায় লকডাউন আরও জোরদার করা হয়েছে। আক্রান্তদের বাসস্থান ও হাসপাতাল জীবাণুমুক্ত করার প্রস্তুতি নিচ্ছে প্রশাসন।



বন্ধ করুন