বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > আশুতোষ-শ্যামাপ্রসাদ কলেজের ছাত্র গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষে গ্রেফতার ৫
ছাত্র সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে গুরুতর জখম ভবানীপুর থানার অতিরিক্ত ওসি।
ছাত্র সংঘর্ষ থামাতে গিয়ে গুরুতর জখম ভবানীপুর থানার অতিরিক্ত ওসি।

আশুতোষ-শ্যামাপ্রসাদ কলেজের ছাত্র গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষে গ্রেফতার ৫

  • আক্রান্ত হন পুলিশ অফিসারও।

আশুতোষ এবং শ্যামাপ্রসাদ কলেজে শনিবার সন্ধ্যায় তৃণমূল ছাত্র পরিষদের দু'পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধে। আক্রান্ত হন পুলিশ অফিসারও। পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটও ছোড়া হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। ইতিমধ্যে এই ঘটনায় ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, গতকাল পেট্রোপণ্যের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে তৃণমূল কংগ্রেসের বিক্ষোভ কর্মসূচি ছিল। সেই কর্মসূচি সেরে ফেরার পথে আশুতোষ কলেজের ছাত্র পরিষদের দু পক্ষের মধ্যে পুরনো একটি বিবাদকে কেন্দ্র করে ফের ঝামেলা শুরু হয়। কথা কাটিকাটি শেষ পর্যন্ত হাতাহাতিতে গিয়ে পৌঁছোয়। তখন তৃণমূলের ছাত্র পরিষদের এক পক্ষ অভিযোগ জানানোর জন্য থানায় যাওয়ায় প্রস্তুতি শুরু করলে অপর পক্ষের সদস্যরা বাধা দেওয়ার জন্য বাইরে ইটবৃষ্টি শুরু করেন। পুলিশ সংঘর্ষ থামাতে গেলে তাদের লক্ষ্য করেও ইটবৃষ্টি করা হয়। এতে ভবানীপুর থানার অ্যাডিশনাল ওসি রাজীব সাহুর মাথা ফাটে। পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ছোড়া হয় বলেও অভিযোগ উঠেছে। ইতিমধ্যে পুলিশ গোটা ঘটনার তদন্ত করছে। এই ঘটনায় দুপক্ষের পাঁচজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। এদের মধ্যে তৃণমূল ছাত্র পরিষদের এক প্রাক্তনী আছেন বলেও জানা গিয়েছে।

গতকাল সন্ধ্যায় ওই ঘটনা ঘটার পরই সেখানে যান কলকাতা পুলিশের ডিসি সাউথ। কীভাবে ওই ঘটনার সূত্রপাত, এঅ ঘটনা ঘটানোর পিছনে কারো কোনও উস্কানি ছিল কিনা, সে বিষয়ে জানার চেষ্টা করেন ওই পুলিশ কর্তা। তবে সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশ আক্রান্ত হওয়ায় পুলিশের সুরক্ষা নিয়েই প্রশ্ন তুলেছেন প্রাক্তন এক পুলিশ কর্তা। প্রাক্তন এক পুলিশ কর্তা জানান, পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট ছোড়া নতুন কিছু ঘটনা নয়। বাইরে থেকে এভাবে ইট ছোড়া অনুচিত। এরজন্য উপযুক্ত ধারায় মামলা হবেই। পুলিশের ওপর হামলার ঘটনা বাড়ছে। উশৃঙ্খলতা বাড়ছে। এরজন্য রাজনৈতিক সদিচ্ছার প্রয়োজন।

বন্ধ করুন