বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কামারহাটিতে তৃণমূলের কার্যালয়ে হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ৬, শুরু তৃণমূল-বিজেপি তরজা
কামারহাটিতে তৃণমূলের এই পার্টি অফিসের সামনেই শনিবার মারধর করা হয় তৃণমূল কর্মীদের।
কামারহাটিতে তৃণমূলের এই পার্টি অফিসের সামনেই শনিবার মারধর করা হয় তৃণমূল কর্মীদের।

কামারহাটিতে তৃণমূলের কার্যালয়ে হামলার ঘটনায় গ্রেফতার ৬, শুরু তৃণমূল-বিজেপি তরজা

  • আক্রান্তরা জানিয়েছেন, ৭টি মোটরসাইকেলে করে জনা ২০ দুষ্কৃতী পার্টি অফিসের সামনে এসে বিনা প্ররোচনাতেই মারধর শুরু করে।

কামারহাটিতে তৃণমূলকর্মীকে মারধরের ঘটনায় ৬ দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করল বেলঘরিয়া থানার পুলিশ। ধৃতদের রবিবার বারাকপুর আদালতে পেশ করেছে পুলিশ। পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে ধৃতরা বিপ্র মণ্ডল, তন্ময় বসু, রফিক আলি, সানু কুণ্ডু, সুভাষ গোমস্তা ও ঋতুরাজ চক্রবর্তী। ধৃতরা এলাকায় তোলাবাজিসহ নানা দুষ্কর্মের সঙ্গে জড়িত বলে জানা গিয়েছে।

রবিবার রাত ১০টা নাগাদ কামারহাটি পুরসভার অন্তর্গত বিভাগ মোড়ে তৃণমূল কার্যালয়ে হামলা চালায় একদল দুষ্কৃতী। পার্টি অফিসে সেই সময় বসে থাকা তৃণমূলকর্মীদের বার করে মারধর শুরু করে তারা। মানস মণ্ডল নামে এক তৃণমূলকর্মীকে লক্ষ্য করে খুব কাছ থেকে গুলি চালানো হয় বলে অভিযোগ। বন্দুকের বাট দিয়েও মারধর করা হয় তৃণমূলকর্মীদের। আহত ৩ তৃণমূলকর্মী ইএম বাইপাসের ধারে বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।

আক্রান্তরা জানিয়েছেন, ৭টি মোটরসাইকেলে করে জনা ২০ দুষ্কৃতী পার্টি অফিসের সামনে এসে বিনা প্ররোচনাতেই মারধর শুরু করে। মারতে মারতে তৃণমূলকর্মীদের নিয়ে যাওয়া হয় পার্টি অফিসের বাইরে।

ঘটনার পর কামারহাটির বিভিন্ন এলাকায় তল্লাশি চালিয়ে ৬ জনকে গ্রেফতার করে বারাকপুর কমিশনারেটের পুলিশ। ধৃতরা প্রত্যেকে ঘটনাস্থলে ছিল বলে পুলিশের তরফে দাবি করা হয়েছে। ঘটনার সিসিটিভি ফুটেজ দেখে বাকি দুষ্কৃতীদের খুঁজছে পুলিশ।

ঘটনায় বিজেপির দিকে অভিযোগ তুলেছেন স্থানীয় তৃণমূল বিধায়ক মদন মিত্র। যদিও ঘটনাস্থলে থাকা তৃণমূলকর্মীরা জানিয়েছেন দুষ্কৃতীরা কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যুক্ত নয়। পালটা বিজেপির তরফে দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়েছেন, ‘ভাগবাটোয়ারা নিয়ে গোলমালের জেরেই এই হামলা। এরাই তো তৃণমূল কংগ্রেস দলটাকে চালায়।’

 

বন্ধ করুন