বাড়ি > বাংলার মুখ > কলকাতা > কলকাতায় একই ওয়ার্ডে ৬ জনের দেহে দ্বিতীয় বার করোনা সংক্রমণ
প্রতীকি ছবি
প্রতীকি ছবি

কলকাতায় একই ওয়ার্ডে ৬ জনের দেহে দ্বিতীয় বার করোনা সংক্রমণ

  • মুশকিলের কথা হল, এই ৬ জন রোগীর একজনের সঙ্গে আরেকজনের কোনও যোগাযোগ নেই। প্রত্যেকের চিকিৎসা হয়েছে আলাদা হাসপাতালে। এমনকী পরীক্ষাও হয়েছে আলাদা পরীক্ষাগারে।

করোনামুক্ত হওয়ার পরও ফের পরীক্ষায় শরীরে মিলল ভাইরাসের অস্তিত্ব। কলকাতায় একই ওয়ার্ডে এমন ঘটনায় চিন্তিত পুরসভার আধিকারিক থেকে চিকিৎসক ও বিশেষজ্ঞরা। কলকাতা পুরসভার ১০১ নম্বর ওয়ার্ডে অন্তত ৬ জনকে করোনামুক্ত ঘোষণার পরও ফের তাদের দেহে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব মিলেছে। তাঁরা কি ফের আক্রান্ত হয়েছেন, না কি পরীক্ষা পদ্ধতিতে গলদ ছিল, তা জানতে এখন তদন্ত শুরু করেছেন আধিকারিকরা।

ভাইরাসমুক্তির পর ফের করোনায় আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা বিরল নয়। কিন্তু একই ওয়ার্ডে ৬ জনের ক্ষেত্রে এমন ঘটনা ঘটা সম্ভব নয় বলে দাবি বিশেষজ্ঞদের। তাই বিষয়টি নিয়ে চিন্তিত তাঁরা। 

আক্রান্তদের প্রায় সবারই সংক্রমণ ধরা পড়ে অগাস্টের প্রথমে। কেউ ভর্তি ছিলেন হাসপাতালে, কাউকে আবার হোম আইসোলেশনে রাখা হয়েছিল। এর মধ্যে ১৭ বছরের এক তরুণের তো কোনও উপসর্গই ছিল না। তাঁকে ১৪ দিন বিনা পরীক্ষাতেই করোনামুক্ত ঘোষণা করে দেন চিকিৎসক। তার পর নিজের উদ্যোগে পরীক্ষা করান তিনি। তাতে জানা যায়, তরুণের দেহে করোনাভাইরাস তখনও হাজির। 

মুশকিলের কথা হল, এই ৬ জন রোগীর একজনের সঙ্গে আরেকজনের কোনও যোগাযোগ নেই। প্রত্যেকের চিকিৎসা হয়েছে আলাদা হাসপাতালে। এমনকী পরীক্ষাও হয়েছে আলাদা পরীক্ষাগারে। আর সবকটি পরীক্ষাই হয়েছে ভাইরাস সনাক্তকরণের গোল্ড স্ট্যান্ডার্ড বলে পরিচিত RT-PCR পদ্ধতিতে। 

কেন ফের করোনার অস্তিত্ব মিলছে সুস্থ হয়ে ওঠা ব্যক্তির দেহে তা নিয়ে বেশ চিন্তিত চিকিৎসকরা। মানবদেহে অ্যান্টিজেনের কার্যকারিতা নিয়েও সন্দিহান তাঁরা। তাই করোনামুক্ত হলেও সাবধানতা অবলম্বনের পরামর্শ দিচ্ছেন তাঁরা। 

 

বন্ধ করুন