বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > খাস কলকাতায় মহিলার শ্লীলতাহানি, প্রকাশ্য রাস্তায় সহবাসের প্রস্তাবের অভিযোগ
প্রকাশ্যে রাস্তায় মহিলাকে জড়িয়ে ধরে ওই ব্যক্তি বলে অভিযোগ। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)
প্রকাশ্যে রাস্তায় মহিলাকে জড়িয়ে ধরে ওই ব্যক্তি বলে অভিযোগ। (ছবিটি প্রতীকী, সৌজন্য হিন্দুস্তান টাইমস)

খাস কলকাতায় মহিলার শ্লীলতাহানি, প্রকাশ্য রাস্তায় সহবাসের প্রস্তাবের অভিযোগ

  • তখন ওই মহিলা শ্লীলতাহানির অভিযোগ তুলে থানায় জানান। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

এবার খাস কলকাতায় শ্লীলতাহানি। এক মহিলা রাস্তায় সারমেয়দের খাবার দিতে গিয়েছিলেন। তখন তাঁকে এক ব্যক্তি কুপ্রস্তাব দেয়। মহিলাটি তাতে সাড়া না দিলে হাত ধরে টানাটানি করে ওই ব্যক্তি। আর প্রকাশ্যে রাস্তায় মহিলাকে জড়িয়ে ধরে ওই ব্যক্তি বলে অভিযোগ। তখন ওই মহিলা শ্লীলতাহানির অভিযোগ তুলে থানায় জানান। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, মহিলার অভিযোগ, কয়েকদিন ধরে এলাকারই এক ব্যক্তি তাঁকে কুপ্রস্তাব দিচ্ছিলেন। কিন্তু তাতে গুরুত্ব দিচ্ছিলেন না। এড়িয়ে যাচ্ছিলেন। এবার এই ঘটনা ঘটল। তাই বাধ্য হয়ে এবার থানায় অভিযোগ জানান। পাল্টা অভিযুক্তের ছেলের দাবি, অভিযোগকারী টাকা ধার চেয়েছিলেন। তা না দেওয়ায় ফাঁসানোর চেষ্টা করছেন তাঁর বাবাকে। শহরের পশ এলাকা গোলপার্কের এই ঘটনাকে ঘিরে সরগরম হয়ে উঠেছে এলাকা।

আবার পেশায় আইনজীবী ওই মহিলার অভিযোগ, এখানের এক ব্যক্তি প্রায়ই তাঁকে রাস্তায় একা দেখলে কুপ্রস্তাব দিতেন। এমনকী তাঁকে সহবাসের প্রস্তাবও দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। কিন্তু তাতে কর্ণপাত না করে এড়িয়ে যাওয়াই শ্রেয় বলে মনে করেছিলেন ওই মহিলা। কিন্তু এবার বিষয়টি চরমে ওঠায় তিনি পুলিশের দ্বারস্থ হন। গত ১১ জুলাই গড়িয়াহাট থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।

ওই মহিলার বয়ান, ‘‌এই ব্যক্তি ২০২০ সালের মে–জুন মাস থেকে আমাকে কুপ্রস্তাব দিচ্ছিলেন। আমি রাত সাড়ে ৯টা ১০টা নাগাদ পাড়ায় সারমেয়দের খাওয়াতে যাই। উনিও সেখানে এসে বিরক্ত করেন। সকলের সামনে অভব্য আচরণ করেন। কুপ্রস্তাব দেন। আর তারপর স্পর্শ পর্যন্ত করেন।’‌ পাল্টা অভিযুক্তের ছেলের দাবি, ‘‌আমার বাবাকে ফাঁসাতে এসব করা হচ্ছে। উনি পারিবারিক সমস্যার জন্য আমার বাবার কাছ থেকে ৫০ হাজার টাকা চেয়েছিলেন। মা, আমার সামনেই এটা হয়। বাবা সেই টাকা দিতে পারেনি। তারপর থেকে এমন অভিযোগ তুলছেন।’‌ যদিও ওই ব্যক্তির কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি।

বন্ধ করুন