বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Adenoviruses: অ্যাডিনোভাইরাসে শহরের একটিও শিশুর মৃত্যু হয়নি, জনস্বার্থ মামলা হাইকোর্টে

Adenoviruses: অ্যাডিনোভাইরাসে শহরের একটিও শিশুর মৃত্যু হয়নি, জনস্বার্থ মামলা হাইকোর্টে

কলকাতা হাইকোর্ট। ছবি সৌজন্য : পিটিআই (PTI)

অ্যাডিনোভাইরাস নিয়ে কলকাতা পুরসভার তরফে ফেব্রুয়ারিতে সমীক্ষা চালানো শুরু হয়েছে। তাতে ৭০০ জন আশাকর্মীর পাশাপাশি রয়েছেন ১০০ দিনের স্বাস্থ্যকর্মী, নার্স। পুরসভার তরফে তাঁরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে শিশুদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে থাকেন। ১৪৪টি ওয়ার্ডে আশাকর্মী এবং স্বাস্থ্যকর্মীরা যাচ্ছেন।

রাজ্যে হু হু করে বাড়ছে অ্যাডিনোভাইরাসের সংক্রমণ। বহু শিশু এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ইতিমধ্যেই হাসপাতালে ভরতি রয়েছে। কার্যত জ্বর, সর্দিতে আক্রান্ত শিশুতে ভরে গিয়েছে হাসপাতালগুলির বেড। আবার অনেকেরই মৃত্যু হয়েছে জ্বর, সর্দি, কাশিতে। যার মধ্যে বেশ কয়েকজনের মৃত্যু হয়েছে অ্যাডিনোভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে। তবে কলকাতা পুরসভার স্বাস্থ্য বিভাগ জানিয়েছে, শহরে এখনও পর্যন্ত কোনও শিশু অ্যাডিনোভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারা যায়নি। এ নিয়ে এবার কলকাতা হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলা দায়ের হল। এই জনস্বার্থ মামলাটি দায়ের করেছে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী কাউন্সিল। তাতে দাবি করা হয়েছে, অ্যাডিনোভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য দফতরকে হেল্পলাইন চালু করতে হবে। পাশাপাশি এ নিয়ে গাইডলাইন এবং নির্দেশিকা স্বাস্থ্য দফতরকে ঠিক করতে হবে বলে আর্জি জানানো হয়েছে। এছাড়াও হাসপাতালে পর্যাপ্ত পরিমাণে ভেন্টিলেশনের ব্যবস্থা করার আর্জি জানানো হয়েছে। এই মামলায় স্বাস্থ্য দফতরকে পার্টি করা হয়েছে। আগামী সপ্তাহে মামলার সম্ভাবনা রয়েছে।

প্রসঙ্গত, অ্যাডিনোভাইরাস নিয়ে কলকাতা পুরসভার তরফে ফেব্রুয়ারিতে সমীক্ষা চালানো শুরু হয়েছে। তাতে ৭০০ জন আশাকর্মীর পাশাপাশি রয়েছেন ১০০ দিনের স্বাস্থ্যকর্মী, নার্স। পুরসভার তরফে তাঁরা বাড়ি বাড়ি গিয়ে শিশুদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে থাকেন। ১৪৪টি ওয়ার্ডে আশাকর্মী এবং স্বাস্থ্যকর্মীরা যাচ্ছেন। অনলাইনের মাধ্যমে এই সমস্ত তথ্য আপলোড করা হচ্ছে। যার ফলে পুরসভার মেয়র পারিষদ-সহ স্বাস্থ্য আধিকারিকরা সেই তথ্য পুরভবন থেকে দেখতে পাচ্ছেন। ডেপুটি মেয়র তথা মেয়র পারিষদ (স্বাস্থ্য) অতীন ঘোষ জানিয়েছিলেন, এই মুহূর্তে অভিভাবকরা ভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত ঠিকই। তবে কলকাতায় একজন শিশুও আক্রান্ত হয়নি। পুরসভার স্বাস্থ্যকর্মীরা বাড়ি বাড়ি যাচ্ছেন, শিশুদের শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নিচ্ছেন, পরিদর্শন করছেন, জ্বর সর্দি কাশি থাকলে শিশুদের বিনামূল্যে প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র থেকে ওষুধ দেওয়া হচ্ছে।

ডেপুটি মেয়র দাবি করেছেন, কলকাতায় একজন শিশুও অ্যাডিনোভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি। যারা হাসপাতালে ভরতি আছে তাদের বেশিরভাগই ভিন জেলার অথবা অন্যান্য রাজ্যের। অন্যদিকে, অ্যাডিনোভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে ইতিমধ্যে টাস্ক ফোর্স গঠন করেছে রাজ্য সরকার। এই টাস্ক কোর্স শ্বাসনালীতে সংক্রমণের কারণে বিভিন্ন হাসপাতালে শিশুদের ভরতি, ডিসচার্জ বা কত শিশুর মৃত্যু হয়েছে সেই সংক্রান্ত তথ্য সংগ্রহ করবে। তার ভিত্তিতে এর মোকাবেলায় কীভাবে চিকিৎসা করা যায়? তার নির্দেশিকা ঠিক করবে।

এই খবরটি আপনি পড়তে পারেন HT App থেকেও। এবার HT App বাংলায়। HT App ডাউনলোড করার লিঙ্ক https://htipad.onelink.me/277p/p7me4aup

বাংলার মুখ খবর

Latest News

সুযোগ পেতে খারাপ ছেলে হতে হবে… রুতুরাজকে বাদ দেওয়ায় চটেছেন ভারতের প্রাক্তনী ২২ বছর আগের দুর্গাষ্টমীতে শুরু প্রেম, ২০ দিন আগে শেষবার একফ্রেমে যিশু-নীলাঞ্জনা! ২১ জুলাই কলকাতায় কোন কোন রাস্তায় গাড়ি ঘোরানো হবে? কোথায় পার্কিং নেই? রইল তালিকা মুখ্যমন্ত্রীর প্রশ্নের মুখে বিধায়ক সাবিত্রী মিত্র, একুশের সভায় নতুন কী মিলবে?‌ আম্বানিদের বিয়েতে নাচানাচি,চেন্নাই যাওয়ায়ই কাল! হাসপাতাল থেকে ঘরে ফিরলেন জাহ্নবী টেকনিক্যাল কমিটিকে অন্ধকারে রেখেই কোচ বাছাই, রেগে লাল বাইচুং, দিলেন ইস্তফা 'ও সব ছাড়...' বিয়ের পর শাখা পলা পরা নিয়ে যা বললেন দর্শনার শাশুড়ি মুখ্যমন্ত্রীর আবেদনে সাড়া দিল মেট্রো রেল, একুশে জুলাই বিশেষ ব্যবস্থা লাইফ লাইনে 'সূর্য'র প্রিমিয়ারে ছোট পর্দায় ফেরার আভাস মধুমিতার? ৫বছরের প্রেম ভাঙে, সুস্মিতা বলছেন, ‘বিশ্বাসঘাতকদের জীবনে কোনও ঠাঁই নেই, আমি একা'

Copyright © 2024 HT Digital Streams Limited. All RightsReserved.