বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > পরিবারে আর্থিক সমস্যার জেরে পরীক্ষায় খারাপ ফল, হতাশায় আত্মঘাতী ছাত্র
বাঁশদ্রোণীতে আত্মঘাতী ছাত্র। প্রতীকী ছবি।
বাঁশদ্রোণীতে আত্মঘাতী ছাত্র। প্রতীকী ছবি।

পরিবারে আর্থিক সমস্যার জেরে পরীক্ষায় খারাপ ফল, হতাশায় আত্মঘাতী ছাত্র

  • রান্নাঘরের সবজি কাটার ছুরি দিয়ে নিজের পেটে আঘাত করে আত্মঘাতী হয়েছেন রবিন দেবনাথ নামে এক ছাত্র।

লকডাউনে কাজ হারিয়েছিলেন বাবা। তারপর থেকেই আর্থিক অনটন লেগেই রয়েছে সংসারে। সেইসঙ্গে সাংসারিক অশান্তি নিত্যদিনের ঘটনা হয়েছে। তারওপর পরীক্ষাতেও কৃতকার্য না হতে পারার অবসাদও ক্রমেই গ্রাস করেছিল তাকে। এই সমস্ত কারণে আত্মহত্যার পথ বেছে নিলেন বাঁশদ্রোণীর দ্বাদশ শ্রেণীর এক ছাত্র। রান্নাঘরের সবজি কাটার ছুরি দিয়ে নিজের পেটে আঘাত করে আত্মঘাতী হয়েছেন রবীন দেবনাথ (২৩) নামে ওই ছাত্র। যুবকের অকাল মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে পরিবারে।

প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান, হতাশা এবং অবসাদ থেকেই আত্মহত্যা করেছে রবীন। তার বাবা সুশোভন দেবনাথ একটি বেসরকারি সংস্থায় কাজ করতেন। কাজ হারানোর পরেই সংসারে আর্থিক সংকট নেমে আসে। কোনওভাবে আয়ার কাজ করে সংসার চালাচ্ছেন তার মা। আর তা নিয়েই তার বাবা-মায়ের মধ্যে নিত্য ঝগড়া লেগেই থাকত।

পরিবারের সদস্যরা জানাচ্ছেন, আর্থিক সংকটের ফলে ভালো পড়াশোনা করতে পারেনি রবিন। পরীক্ষায় অকৃতকার্য হওয়ায় তাকে স্কুল থেকে বহিষ্কারও করা হয়।

পুলিশ সূত্রে জানা যাচ্ছে, মঙ্গলবার রাতে আর্থিক সমস্যা নিয়ে বাবা-মায়ের সঙ্গে রবিনের বচসা হয়। পরিবারের আর্থিক অনটন ঘোচাতে যুবককে আয় করার চাপ দেয় পরিবার। অবশেষে চরম হতাশা থেকে আত্মহত্যার পথ বেছে নেয় যুবক। রান্না ঘরে থাকা সবজি কাটার ছুরি দিয়ে নিজের পেটে আঘাত করে রবীন। রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে যান বাবা মা। সেখানে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। তার দেহ ময়নাতদন্তের পর পরিবারের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশের দাবি, চরম অবসাদ থেকে আত্মহত্যার পথ বেছে নিয়েছে ওই যুবক।

বন্ধ করুন