বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Partha Chatterjee: ‘‌জুতোটা ওর মাথায় লাগলে শান্তি পেতাম’‌, পার্থকে লক্ষ্য করে মহিলার জুতো
পার্থের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে বেরোনোর সময় তাঁর গাড়িতে জুতো ছোড়েন এক জনৈক মহিলা। (Samir Jana/HT Photo)

Partha Chatterjee: ‘‌জুতোটা ওর মাথায় লাগলে শান্তি পেতাম’‌, পার্থকে লক্ষ্য করে মহিলার জুতো

  • আজ, মঙ্গলবার জোকা ইএসআই হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল পার্থ–অর্পিতাকে। সেখানে পার্থের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে বেরোনোর সময় তাঁর গাড়িতে জুতো ছোড়েন এক জনৈক মহিলা। যদিও জুতো পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গায়ে লাগেনি। তাঁর গাড়িতে লেগেই পড়ে যায়।

জনমানসে ক্ষোভ তৈরি হয়েছে। ইডি পার্থ চট্টেপাধ্যায়কে হেফাজতে নিয়ে এখন জেরা করছে। আর তাঁর ঘনিষ্ঠ অভিনেত্রীর বাড়ি থেকে কোটি কোটি টাকা উদ্ধার হয়েছে। এমনকী অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে জয়েন্ট অ্যাকাউন্ট রয়েছে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের। এই খবর পর্যন্ত প্রকাশ্যে এসেছে। অভিযোগ উঠেছে, নিয়োগে দুর্নীতি করছেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী। তাই জনমানসে তৈরি হয়েছে ক্ষোভ। আর তার জেরেই আজ তাঁকে লক্ষ্য করে জুতো ছুড়লেন এক মহিলা।

ঠিক কী ঘটেছে জোকায়?‌ স্থানীয় সূত্রে খবর, আজ, মঙ্গলবার জোকা ইএসআই হাসপাতালে চিকিৎসা করাতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল পার্থ–অর্পিতাকে। সেখানে পার্থের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে বেরোনোর সময় তাঁর গাড়িতে জুতো ছোড়েন এক জনৈক মহিলা। যদিও জুতো পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের গায়ে লাগেনি। তাঁর গাড়িতে লেগেই পড়ে যায়।

কেন এমন ঘটনা ঘটালেন ওই মহিলা?‌ জোকা ইএসআই হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে এসেছিলেন ওই মহিলাও। পার্থকে দেখেই তিনি নিজের পা থেকে দু’পাটি জুতো খুলে পর পর ছুড়ে মারেন পার্থকে লক্ষ্য করে। পার্থ চট্টোপাধ্যায় তখন গাড়িতে ছিলেন। ফলে গাড়িতে লেগেছে জুতো। এই ঘটনার পরে ওই মহিলা বলেন, ‘ওঁদের কোটি কোটি টাকা আছে। কলকাতার একাধিক জায়গায় ফ্ল্যাট কিনেছে। বড় গাড়ি করে হাসপাতালে আসছে। এতে আমাদের সমস্যা হচ্ছে। আমরা ঠিক মতো ডাক্তার দেখাতে পারছি না। তাই জন্যই জুতো ছুড়েছি। জুতোটা ওর মাথায় লাগলে শান্তি পেতাম।’

এই মহিলার পরিচয় কী?‌ জানা গিয়েছে, ওই মহিলার নাম শুভ্রা ঘড়ুই। তাঁর বাড়ি আমতলায়। তাঁর ছোড়া জুতো পার্থের গায়ে লাগেনি। ওই মহিলা এক সন্তানের জননী। তাঁর একটি মেয়ে আছে। সে এখন উচ্চমাধ্যমিক স্তরে পড়াশোনা করে। কিন্তু কেন এমন করলেন?‌ জবাবে শুভ্রা ঘড়ুই বলেন, ‘‌এটা আমাদের ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ। হাজার ছেলেমেয়ে চাকরি পায়নি ওঁদের জন্য। তাঁদের সবার ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ। জুতোটা ওর মাথায় লাগলে শান্তি পেতাম।’ এই ঘটনায় ইডির বিশাল নিরাপত্তা ব্যবস্থা প্রশ্নের মুখে পড়ে গেল।

বন্ধ করুন