বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > সোশ্যাল মিডিয়ায় গৃহবধূর সঙ্গে পরিচয় যুবকের, দেহব্যবসায় নামানোর চেষ্টায় গ্রেফতার
গ্রেফতার নাজিম শেখ
গ্রেফতার নাজিম শেখ

সোশ্যাল মিডিয়ায় গৃহবধূর সঙ্গে পরিচয় যুবকের, দেহব্যবসায় নামানোর চেষ্টায় গ্রেফতার

  • সোশ্যাল মিডিয়া পর্ব মিটিয়ে তাদের সম্পর্ক আরও গভীর হয়।

এক গৃহবধূকে ফুঁসলিয়ে দেহব্যবসায় নামামোর চেষ্টার অভিযোগে গ্রেফতার হল যুবক। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই গৃহবধূর সঙ্গে আগ বাড়িয়ে পরিচয় করে ওই যুবক বলে অভিযোগ। তারপর নানা জায়গায় ঘুরতে নিয়ে যায় ওই গৃহবধূকে। সোশ্যাল মিডিয়া পর্ব মিটিয়ে তাদের সম্পর্ক আরও গভীর হয়। এরপরই ওই গৃহবধূকে দেহব্যবসায় নামাতে জোর করতে থাকে ওই যুবক। এমনকী ঘনিষ্ঠ ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়ে দেবে বলে ব্ল্যাকমেল করতে থাকে। ওই গৃহবধূর অভিযোগে যুবককে গ্রেফতার করেছে বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে খবর, বাগুইহাটি এলাকার বাসিন্দা ওই গৃহবধূ। ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসে বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানায় তিনি অভিযোগ করেন, ২০২১ সালের জুন মাস নাগাদ নাজিম শেখ নামের এক ব্যক্তির সঙ্গে সোশ্যাল মিডিয়ায় তার পরিচয় হয়। সেখানেই কথোপকথনে তাদের সম্পর্ক গভীর হয়। এরপর সেই ব্যক্তির সঙ্গে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতেও যায় এই গৃহবধূ। এরপর দেহব্যবসা করতে চাপ দেওয়া হয়। বেশ কয়েকটি ঘনিষ্ঠ মুহূর্তের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছাড়াও হয়। এবার ভিডিও তৈরি করে আপলোড করা হবে বলে ব্ল্যাকমেল করতে থাকে ওই যুবক।

পুলিশকে দেওয়া গৃহবধূর বয়ান অনুযায়ী, গৃহবধূ বুঝতে পারেন সেই যুবক তাঁকে দিয়ে দেহব্যবসা করাতে চাইছে। তাকে জোর করা হতে থাকে বলেও অভিযোগ। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর ফেক প্রোফাইল তৈরি করে ঘনিষ্ঠ ছবি–ভিডিও ভাইরাল করে দেওয়ার হুমকি দেয় অভিযুক্ত। এরপরই বিষয়টি বুঝতে পেরে তার স্বামীকে জানায় ওই গৃহবধূ। বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানায় অভিযোগ দায়ের করেন গৃহবধূ। আজ ওই যুবককে গ্রেফতার করা হয়।

গৃহবধূর অভিযোগের ভিত্তিতে নাজিম শেখের খোঁজে তল্লাশি শুরু করে পুলিশ। তখন অভিযুক্ত মুম্বইয়ে পালিয়ে যায়। অবশেষে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে বর্ধমানের কালনায় হানা দেয় সাইবার ক্রাইম থানার পুলিশ। সেখান থেকে অভিযুক্ত নাজিম শেখকে গ্রেফতার করে পুলিশ। আজ অভিযুক্তকে বিধাননগর আদালতে তোলা হবে। পুলিশ তাকে নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার আবেদন জানাবে। এই ব্যক্তি একই পদ্ধতিতে অন্য কোনও মহিলার সঙ্গে প্রতারণা করেছে কিনা তদন্ত করে দেখছে বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানার পুলিশ।

বন্ধ করুন