বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > নিউটাউনকাণ্ডে ধৃতরা অস্ত্র কারবারেও যুক্ত, দাবি তদন্তকারীদের
নিউ টাউনের সেই ফ্ল্যাট (PTI)
নিউ টাউনের সেই ফ্ল্যাট (PTI)

নিউটাউনকাণ্ডে ধৃতরা অস্ত্র কারবারেও যুক্ত, দাবি তদন্তকারীদের

  • জানা গিয়েছে, মধ্য প্রদেশ থেকে বাংলার নম্বর প্লেট লাগানো গাড়ি নিয়ে ঝাড়খণ্ড থেকে কলকাতায় ঢুকেছিল জসপ্রীত, জয়পালরা।

নিউটাউন এনকাউন্টারকাণ্ডে ধৃতরা মাদক কারবারের সঙ্গে যুক্ত থাকার পাশাপাশি অস্ত্র কারবারের সঙ্গেও যুক্ত। প্রাথমিকভাবে এমনই মনে করছেন তদন্তকারীরা। আন্তর্জাতিক মাদক পাচার চক্রের সঙ্গে নিহত গ্যাংস্টার জয়পাল ও জসপ্রীতের নাম জড়িয়েছিল অনেক আগেই। এবার অস্ত্র কারবারের সঙ্গে তাদের নাম জড়িয়ে গেল।

গত শুক্রবার হরিয়ানার মেহাম থেকে গ্রেফতার করা হয় সুমিত কুমারকে। সুমিত কুমারকে গ্রেফতার করেছে পঞ্জাব পুলিশ। এরপর নানা তথ্য সামনে এসেছে। পুলিশ আগেই জানতে পেরেছিল, সুমিত ও ভরত মিলে আন্তর্জাতিক সিম কাণ্ডের বেআইনি ব্যবসা চালাত। এবার পুলিশ জানতে পেরেছে, ঝাড়খণ্ড, বিহার ও উত্তর প্রদেশের মতো রাজ্যে অস্ত্র পাচারকাণ্ডে জড়িত ছিল তারা।এমনকি বাংলাদেশ, নেপালেও তারা অস্ত্র পাচার করত। পুলিশ তদন্তে নেমে জানতে পেরেছে, সুমিতের বন্ধু পুলিশ কনস্টেবল অমরজিৎ সিং তাদের নানাভাবে ভুয়ো নথিপত্র বের করে সাহায্য করেছিল। ভুয়ো নথিপত্র দিয়ে ভরত কুমারকে সাহায্য করেছিল পুলিশ কনস্টেবল।

এদিকে রাজ্য পুলিশের এসটিএফের তরফেও এই বিষয়ে তদন্ত প্রক্রিয়া চালানো হচ্ছে।জানা গিয়েছে, মধ্য প্রদেশ থেকে বাংলার নম্বর প্লেট লাগানো গাড়ি নিয়ে ঝাড়খণ্ড থেকে কলকাতায় ঢুকেছিল জসপ্রীত, জয়পালরা।প্রথমেই তাঁরা নিউটাউনের এই আবাসনে ওঠেনি।প্রথমে তারা উঠেছিল নিউটাউনের একটি গেস্ট হাউসে।এছাড়াও তারা কোথায় কোথায় ছিল, সেই তথ্যও জোগাড় করার চেষ্টা করছে তদন্তকারীরা।এছাড়াও মেট্রো স্টেশন লাগোয়া বিভিন্ন হোটেলে তল্লাশি শুরু করেছেন তদন্তকারীরা।আগামী সপ্তাহে রাজ্য পুলিশের এসটিএফের তরফে ডিজিকে রিপোর্ট পেশ করার কথা রয়েছে।

বন্ধ করুন