বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌ত্রাণ দিতে এসে মার খেলাম’‌, কালীঘাট থানায় অভিযোগ দায়ের করলেন রুদ্রনীল
রুদ্রনীল ঘোষ (ফাইল চিত্র)
রুদ্রনীল ঘোষ (ফাইল চিত্র)

‘‌ত্রাণ দিতে এসে মার খেলাম’‌, কালীঘাট থানায় অভিযোগ দায়ের করলেন রুদ্রনীল

  • তাঁকে চড় মারা হয়েছে বলে অভিযোগ তোলেন বিজেপি নেতা। তাঁর গালে সপাটে চড় মারা হয়েছে বলে অভিযোগ।

করোনাভাইরাস এবং ইয়াস। এই জোড়া যুদ্ধে রাস্তায় নেমে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছিল রাজ্য নেতৃত্ব। এই নির্দেশের পরই ভবানীপুরে ত্রাণ বিলি করতে গিয়ে নিগ্রহের মুখে পড়তে হল অভিনেতা তথা বিজেপি রুদ্রনীল ঘোষকে। তাঁকে চড় মারা হয়েছে বলে অভিযোগ তোলেন বিজেপি নেতা। তাঁর গালে সপাটে চড় মারা হয়েছে বলে অভিযোগ। একুশের নির্বাচনে তিনি শোভনদেব চট্টোপাধ্যায়ের কাছে পরাজিত হন। শুক্রবার রুদ্রনীল অভিযোগ করেন, ৭১ নম্বর ওয়ার্ডে ত্রাণ বিলি করতে গিয়ে তিনি তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীদের হাতে নিগ্রহের শিকার হয়েছেন। বিষয়টি নিয়ে কালীঘাট থানায় অভিযোগও দায়ের করেছেন তিনি। তৃণমূল কংগ্রেসের পক্ষ থেকে অবশ্য দাবি, এই অভিযোগ সম্পূর্ণ অসত্য, ভিত্তিহীন।

শুক্রবার ভবানীপুর এলাকায় ত্রাণ দিতে গিয়েছিলেন রুদ্রনীল। ৭১ নম্বর ওয়ার্ডের প্রায় ৩০০ পরিবারের হাতে ত্রাণের সামগ্রী তুলে দেন বলে খবর। কিন্তু তারপরই নিগ্রহের মুখে পড়েন তিনি। অভিযোগ, ভবানীপুরের তৃণমূল কংগ্রেস নেতা বাবলু সিংয়ের নেতৃত্বে তাঁর উপর হামলা করা হয়। অভিনেতাকে চড়ও মারা হয়। তিনি অভিযোগ করেন, ‘‌ত্রাণ দিতে এসে মার খেলাম। আমাকে সোজা চড় মেরে দিল! এসব কী চলছে রাজ্যে? কেউ ত্রাণও দিতে পারবে না?’‌

এই বিষয়ে বাবলু সিং অবশ্য বলেন, ‘ওঁকে শুধু প্রশ্ন করেছিলাম। ত্রাণ বিলির প্রশাসনিক অনুমতি আছে কি? তাতেই উনি রেগে যান। তখন কথা কাটাকাটি হয়।’ উল্লেখ্য, আগেও একাধিকার স্থানীয়দের বিক্ষোভের মুখে পড়তে হয়েছে রুদ্রনীল ঘোষকে। একুশের বিধানসভা নির্বাচনে ভবানীপুরের বিজেপি প্রার্থী হিসেবে প্রচারে বেরিয়ে তিনি বাধাপ্রাপ্ত হয়েছিলেন। তাঁকে ঘিরে গো–ব্যাক স্লোগানও উঠেছিল। এবার ত্রাণ বিলি করতে গিয়ে নিগ্রহের শিকার হলেন তিনি।

বন্ধ করুন