বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ইতালি সরকারের বিশেষ অনুমতি ছিল,দেশকে মেনে চলেন বলেই অনুমতি চেয়েছিলেন; দাবি মমতার
নির্বাচনী প্রচারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ছবি সৌজন্যে এএনআই) (Saikat Paul)
নির্বাচনী প্রচারে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ছবি সৌজন্যে এএনআই) (Saikat Paul)

ইতালি সরকারের বিশেষ অনুমতি ছিল,দেশকে মেনে চলেন বলেই অনুমতি চেয়েছিলেন; দাবি মমতার

  • জারি রোম তরজা, ভবানীপুরের মঞ্চ থেকেই বিশ্বশান্তির বার্তা মমতার।

মেলেনি রোমে যাওয়ার অনুমতি। সেই প্রসঙ্গে নিজের নির্বাচনী প্রচার সভা থেকেই তোপ দাগলেন তৃণমূলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি দাবি করেন, তাঁর কাছে ইতালি সরকারের বিশেষ অনুমতি ছিল। তবে দেশকে মেনে চলেন বলেই বিদেশমন্ত্রকের কাছে অনুমতি চেয়েছিলেন। পাশাপাশি তাঁর অভিযোগ, অনেকেই বিনা অনুমতিতেই বিদেশ ভ্রমণ করেন।

মমতা এদিন বলেন, 'আমি যেতে পারিনি। তাই এখান থেকেই বিশ্বশান্তির কথা বলছি। শান্তি, সংহতি সম্প্রীতির কথা বলছি। আমরা সবাইকে নিয়ে থাকব, এটাই আমার অঙ্গীকার। আমাদের সম্পর্ক সব সম্প্রদায়ের সঙ্গে। সেই সম্পর্ক যেন টিকে থাকে। আমি এখান থেকেই বিশ্বশান্তি সম্মেলনকে স্বাগত জানিয়ে সম্মেলনের সাফল্যও কামনা করছি।'

তারপর তৃণমূলনেত্রী কেন্দ্রের প্রতি ক্ষোভ উগরে দিয়ে বলেন, 'আমাকে বিশেষ অনুমতি দিয়েছিল ইতালি সরকার। তবে আমি দেশকে মেনে চলি বলে রোমের আমন্ত্রণ পেয়ে আমি অনুমতি চেয়েছিলাম। কিন্তু আমাকে যাওয়ার অনুমতি দেওয়া হল না। অনেকেই বিদেশমন্ত্রকের অনুমতি না নিয়ে বিদেশে যান।'

এদিন মমতা বলেন, 'ভবানীপুর ছোটখাটো ভারতবর্ষ। এখানে হিন্দু, শিখ, জৈন, পারসিক, খ্রিস্টান সব ধর্মের মানুষ মিলেমিশে বসবাস করেন। আর এখান থেকেই নতুন লড়াই শুরু হচ্ছে। এ বার গোটা ভারতবর্ষের প্রতিটি কোনায় কোনায় পৌঁছে যাব।'

এদিকে তৃণমূল নেত্রীর রোমে যাওয়া প্রসঙ্গ উঠএ আসে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গলাতেও। মমতার রোম যাত্রার অনুমতি না দেওয়ার জন্য এদিন কেন্দ্রকে তীব্র কটাক্ষ করেন অভিষেকও। তিনি বলেন, 'বিশ্বশান্তি বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। কিন্তু যেহেতু মোদীর থেকে মমতার জনপ্রিয়তা বেশি, তাই ওরা তাঁকে যেতে দিল না।' মমতার জন্য ভোটপ্রার্থনা করে অভিষেক বলেছেন, 'বাংলা প্রমাণ করে দিয়েছে, বাংলা বাংলার মেয়েকেই চায়। এবার ভবানীপুরের পালা। ভবানীপুরকেও প্রমাণ করতে হবে যে, ভবানীপুর নিজের মেয়েকেই চায়।'

বন্ধ করুন