বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌দায় স্বীকার করতে হলে মেরুদণ্ড থাকা দরকার’‌, ফের অস্বস্তি বাড়ালেন তথাগত
তথাগত রায়। ফাইল ছবি
তথাগত রায়। ফাইল ছবি

‘‌দায় স্বীকার করতে হলে মেরুদণ্ড থাকা দরকার’‌, ফের অস্বস্তি বাড়ালেন তথাগত

  • এবার ফের নাম না করে দিলীপ ঘোষ–সহ রাজ্য নেতৃত্বকে তুলোধনা করলেন তথাগত রায়।

আবার বিজেপির অস্বস্তি বাড়ালেন বর্ষীয়ান নেতা তথাগত রায়। একুশের নির্বাচনের ফলপ্রকাশের পর নানা টুইট করে বিজেপি নেতৃত্বকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন তিনি। এমনকী নগরের নটিরা টাকা নিয়ে কেলি করেছে বলে বিতর্ক তৈরি করেছিলেন তিনি। এবার ফের নাম না করে দিলীপ ঘোষ–সহ রাজ্য নেতৃত্বকে তুলোধনা করলেন তথাগত রায়। অভিযোগ করলেন, এখন দলের নেতারা হারের প্রকৃত কারণ বিশ্লেষণ করতেই ভয় পাচ্ছেন।

এই অভিযোগ সামনে আসতেই তোলপাড় হয়ে গিয়েছে রাজ্য–রাজনীতি। একুশের নির্বাচনে অমিত শাহ দাবি করেছিলেন, এবার বাংলায় বিজেপি সরকারই আসবে। ২০০–র বেশি আসন নিয়ে আসবে তাঁরা। কিন্তু ফল প্রকাশের পর দেখা গিয়েছে ৮০টি আসনও পেরতে পারেনি গেরুয়া শিবির। এখন অবশ্য বিধায়ক ভাঙন দেখা যাচ্ছে। তবে বিজেপি নেতারা বারবার বলেছেন, ‘‌তিন থেকে সাতাত্তরে তুলেছি।’‌ সেটা অবশ্য আরও কমতে শুরু করেছে।

এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার রাতে টুইট করে তথাগত রায় লেখেন, ‘‌নির্বাচনের আগে বলত, উনিশে হাফ, একুশে সাফ। নির্বাচনের পরে বলে, তিন থেকে সাতাত্তরে তুলেছি। ‘দায় স্বীকার’ করতে হলে মেরুদণ্ড ও সৎসাহস দরকার। যারা হারের কারণ বিশ্লেষণ করতেই ভয় পাচ্ছে, বা হারকে জয় বলে চালাচ্ছে তারা করবে দায় স্বীকার?’‌

তথাগত রায়ের এই টুইটের পর রাজ্য নেতৃত্ব রীতিমতো আলোচনা বসেছেন। কারণ এতে দলের অস্বস্তি প্রবলভাবে দেখা দিয়েছে। এভাবে আক্রমণ করে স্বাভাবিকভাবেই বিতর্কে জড়িয়েছেন তথাগত। আগেও বারবার দলের বিরুদ্ধে গিয়ে নেতাদের একাধিক আচরণের প্রতিবাদ করেছেন তথাগত রায়। আক্রমণ করেছিলেন শ্রাবন্তী, তনুশ্রীদের।

বন্ধ করুন