বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘‌বিচারপতিদের নিশানা করা হচ্ছে, আমি চিন্তিত’‌, ফের অভিষেককে নিশানা ধনখড়ের
রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।

‘‌বিচারপতিদের নিশানা করা হচ্ছে, আমি চিন্তিত’‌, ফের অভিষেককে নিশানা ধনখড়ের

  • ইতিমধ্যেই মুখ্যসচিবকে রাজ্যপাল নির্দেশ দিয়েছেন, ‌আগামী ৬ জুনের মধ্যে এই ব্যাপারে পদক্ষেপ করতে হবে। এমনকী একজন জনপ্রতিনিধি বিচারব্যাবস্থা নিয়ে এমন মন্তব্য করবেন, তাকে কোনওভাবেই উপেক্ষা করা যাবে না। আগামীকাল, ৬ জুন দেখার কি রিপোর্ট দেন মুখ্যসচিব। 

বিচারব্যবস্থা নিয়ে হলদিয়া থেকে এক শতাংশ বিচারপতিদের নিশানা করেছিলেন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এই নিয়ে সাংসদ সীমা লঙ্ঘন করেছেন বলে মন্তবষ করেছিলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। এবার আবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে সরব হলেন রাজ্যপাল।

ঠিক কী বলেছেন রাজ্যপাল?‌ এই বিষয়ে নয়াদিল্লি রওনা হওয়ার আগে রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় সাংবাদিকদের বলেন, ‘‌সংবিধানের মৌলিক পরিকাঠামোর একটি অঙ্গ হল বিচারব্যবস্থা। গণতন্ত্রের জন্য বিচারব্যবস্থার স্বাধীনতা থাকা ভীষণ প্রয়োজন। কিন্তু যেভাবে বিচারপতিদের নিশানা করা হচ্ছে, তাতে সাংবিধানিক প্রধান হিসেবে আমি চিন্তিত। যদি কোন বিচারপতিকে নিশানা করা হয়, তাহলে তা বিচারব্যবস্থার উপর আক্রমণের সব থেকে নিকৃষ্ট উদাহরণ। বিচারপতিরা যে মামলাগুলি দেখছেন, তার জন্য যদি তাঁদের নিশানা করা হয়, তবে বিষয়টি অত্যন্ত দুশ্চিন্তার। মানুষের কাছে যেন বার্তা দেওয়া হচ্ছে, তাঁরা বিচারব্যবস্থার তোয়াক্কা করেন না।’‌

ঠিক কী বলেছিলেন অভিষেক?‌ হলদিয়ার শ্রমিক সম্মেলনে অভিষেক বলেছিলেন, ‘‌আমার বলতেও লজ্জা লাগে বিচারব্যবস্থায় একজন দু’জন এমন আছে যারা সম্পূর্ণ তল্পিবাহক হিসাবে কাজ করছে। ওয়ান পার্সেন্ট। কিছু হলেই তারা সিবিআই দিয়ে দিচ্ছে। মার্ডার কেসে তদন্তে স্থগিতাদেশ দিয়ে দিচ্ছে। কখনও শুনেছেন?’ যদিও এই নিয়ে মামলা করা হলে কলকাতা হাইকোর্টে তা খারিজ হয়ে যায়।

উল্লেখ্য, ইতিমধ্যেই মুখ্যসচিবকে রাজ্যপাল নির্দেশ দিয়েছেন, ‌আগামী ৬ জুনের মধ্যে এই ব্যাপারে পদক্ষেপ করতে হবে। এমনকী একজন জনপ্রতিনিধি বিচারব্যাবস্থা নিয়ে এমন মন্তব্য করবেন, তাকে কোনওভাবেই উপেক্ষা করা যাবে না। আগামীকাল, ৬ জুন দেখার কি রিপোর্ট দেন মুখ্যসচিব। আর এখন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় চিকিৎসার জন্য দুবাইয়ে গিয়েছেন।

বন্ধ করুন