বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > 'ভারতের নাগরিকত্ব ছাড়ার পরেও যুব তৃণমূলের পদ পায় বিনয়,' বিতর্ক উসকে শুভেন্দু
পলাতক বিনয় মিশ্র, ভানুয়াতু-র রাজধানী পোর্ট ভিলে তিনি রয়েছেন বলে দাবি করা হচ্ছে। (ফাইল ছবি)
পলাতক বিনয় মিশ্র, ভানুয়াতু-র রাজধানী পোর্ট ভিলে তিনি রয়েছেন বলে দাবি করা হচ্ছে। (ফাইল ছবি)

'ভারতের নাগরিকত্ব ছাড়ার পরেও যুব তৃণমূলের পদ পায় বিনয়,' বিতর্ক উসকে শুভেন্দু

  •  কয়লা পাচারকাণ্ডে অভিযুক্ত বিনয় মিশ্রের প্রসঙ্গকে সামনে এনে ফের তৃণমূলকে অস্বস্তিতে ফেলার চেষ্টা করলেন বিজেপি বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী

ফের কয়লা পাচারকাণ্ডে অভিযুক্ত তথা বর্তমানে ফেরার বিনয় মিশ্র প্রসঙ্গকে সামনে এনে টুইট করলেন নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক তথা রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী। পাশাপাশি বিনয় মিশ্রের কথা সামনে এনে শাসকদল তৃণমূলকে অস্বস্তিতে ফেলতে সবরকম উদ্যোগ নিলেন তিনি। টুইটে শুভেন্দু অধিকারী লিখেছেন, ‘দেখে যা মনে হচ্ছে ২০১৮ সালে ভারতীয় নাগরিকত্ব ছেড়ে ভানুয়াতুর নাগরিকত্ব নেন বিনয় মিশ্র। একই ব্যক্তিকে ২০২০ সালে যুব তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক করা হয়। এব্য়াপারে নির্বাচন কমিশনের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে চাইছি। ভারতীয় আইন কি কোনও বিদেশিকে কোনও রাজনৈতিক দলের অংশ হওয়ার অনুমোদন দেয়?’

পাশাপাশি দুটি কাগজকে সামনে এনেছেন তিনি। একটিতে বিনয়ের বিদেশি নাগরিকত্ব সংক্রান্ত নথি বলে দাবি করা হয়েছে । অন্যটিতে সর্বভারতীয় যুব তৃণমূল কংগ্রেসের ২০২০র ২৩ জুলাইয়ের একটি বার্তা যেখানে সংগঠনের একটি প্যাডে যুব তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদকের তালিকায় ৭ নম্বরে নাম রয়েছে বিনয়ের। এখানেই প্রশ্ন তুলেছেন শুভেন্দু, যিনি ২০১৮ সালে ভারতীয় নাগরিকত্ব ছেড়ে বিদেশি নাগরিকত্ব নেন, তাকে ২০২০ সালে কীভাবে যুব তৃণমূলের রাজ্য সাধারণ সম্পাদকের মতো গুরুত্বপূর্ণ পদে বসানো হয়? প্রশ্ন উঠছে, তবে কী বিনয়কে রক্ষার জন্য়ই এতটা তৎপর ছিল তৃণমূল?

 এদিকে সম্প্রতি দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে শেষে শুভেন্দুর মুখে শোনা গিয়েছিল বিনয় মিশ্রের প্রসঙ্গ। তিনি সেদিন বলেছিলেন, বিনয়কে বাংলারই কোনও পুলিশ আধিকারিক শংসাপত্র দিয়েছিলেন। সেকারণেই তিনি বিদেশের নাগরিকত্ব পেয়েছিলেন। তবে বিনয়কাণ্ডকে সামনে এনে শাসকদলে অস্বস্তি বাড়াতে ফের যে তৎপর হচ্ছে গেরুয়া শিবির তা শুভেন্দুর টুইটে অনেকটাই পরিষ্কার।

 

বন্ধ করুন