বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > Murder: এতদিন কেন আসেননি? বাগুইআটিতে মৃত ছাত্রের পাড়ায় বাধার মুখে সিপিএম
মঙ্গলবার বিকেলে বাগুইআটিতে অতনুর বাড়ির সামনে পুলিশকে ঘিরেও স্থানীয়রাও বিক্ষোভ দেখিয়েছিলেন।

Murder: এতদিন কেন আসেননি? বাগুইআটিতে মৃত ছাত্রের পাড়ায় বাধার মুখে সিপিএম

  • মন্ত্রী সুজিত বসু বলেন, অত্যন্ত জঘন্য ঘটনা। মুখ্যমন্ত্রী আমাদের পাঠিয়েছেন। পুলিশের কেউ ভুল করে থাকলে তাহলে তিনি ছাড় পাবেন না। দেখা হবে বিষয়টি। কে কোথায় বিক্ষোভের মুখে পড়েছেন জানি না।

আমরা রাজনীতি চাই না। এতদিন কেন আসেননি? সিপিএমের প্রতিনিধিদের সামনে তুমুল ক্ষোভ প্রকাশ বাগুইআটির মৃত অভিষেক নস্করের প্রতিবেশীদের। কার্যত প্রতিবেশীদের বাধার মুখে পড়লেন একাধিক রাজনৈতিক দলের নেতারা। অন্যদিকে এদিন কংগ্রেসের প্রতিনিধিরাও অপর মৃত ছাত্র অতনু দের বাড়িতে যাওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু তাঁদেরকেও কার্যত ফিরিয়ে দেন প্রতিবেশীরা। এমনকী এদিন এলাকায় শাসকদলের নেতাদের দেখেও অসন্তোষ প্রকাশ করেন  প্রতিবেশীদের একাংশ। তাঁদের দাবি, এতদিন সকলের কাছে সহায়তা চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু কারোর কোনও ভ্রক্ষেপ ছিল না।

বাগুইআটির হিন্দু বিদ্য়াপীঠের ছাত্র ছিলেন অতনু ও অভিষেক। দুজনেই ছিলেন দশম শ্রেণির ছাত্র। গত ২২ অগস্ট থেকে নিখোঁজ হয়েছিল তারা। দিন দুয়েক বহু জায়গায় খুঁজেও তাদের সন্ধান মেলেনি। এরপর পুলিশের কাছে যায় পরিবার। অতনুর বাবা পুলিশের কাছে দাবি করেছিলেন বার বার মুক্তিপণ চাওয়া হচ্ছে। এদিকে সেই পুলিশের বিরুদ্ধেই উঠেছে তদন্তের অবহেলার অভিযোগ। 

এদিকে এদিন বাম নেতা সুজন চক্রবর্তী সহ অন্যান্যরা মৃত অভিষেক নস্করের বাড়িতে গিয়েছিলেন। কিছুক্ষণ তাঁরা পরিবারের লোকজনের সঙ্গে কথা বলেন। কিন্তু তাঁদের কথার মাঝেই বাইরে বিক্ষোভ শুরু হয়ে যায়। কার্যত নানাভাবে তাঁদের বাধার মুখে পড়তে হয়।

এদিন মন্ত্রী সুজিত বসু ও পুলিশ কর্তারাও যান মৃত ছাত্রদের বাড়িতে।  মন্ত্রী সুজিত বসু বলেন, অত্যন্ত জঘন্য ঘটনা। মুখ্যমন্ত্রী আমাদের পাঠিয়েছেন। পুলিশের কেউ ভুল করে থাকলে তাহলে তিনি ছাড় পাবেন না। দেখা হবে বিষয়টি। কে কোথায় বিক্ষোভের মুখে পড়েছেন জানি না। 

 

বন্ধ করুন