বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > দীর্ঘদিনের পরিচিত ব্যক্তিই বিশ্বাসঘাতকতা করল, হাতিয়ে নিল ফিক্সড ডিপোজিটের টাকা
ধৃত ব্যাঙ্ক কর্মীকে আদালতে নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ। নিজস্ব ছবি।

দীর্ঘদিনের পরিচিত ব্যক্তিই বিশ্বাসঘাতকতা করল, হাতিয়ে নিল ফিক্সড ডিপোজিটের টাকা

  • ব্যাঙ্ক কর্মীর নাম শুভঙ্কর পান্ডে। আজ রবিবার স্ত্রী তাকে বিধাননগর আদালতে তোলা হলে পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক।

বৃদ্ধ বয়সে একমাত্র সম্বল ছিল ৩০ লক্ষ টাকার ফিক্সড ডিপোজিট। জালিয়াতি করে সেই টাকা তুলে নেওয়ার অভিযোগ উঠল বৃদ্ধের পরিচিত এক ব্যাঙ্ক কর্মীর বিরুদ্ধে। এই অভিযোগ পাওয়ার পরে পুলিশ ওই ব্যাঙ্ক কর্মীকে গ্রেফতার করেছে। ধৃত ব্যাঙ্ক কর্মীর নাম শুভঙ্কর পান্ডে। আজ রবিবার তাকে বিধাননগর আদালতে তোলা হলে পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন বিচারক। প্রতারিত হওয়া বৃদ্ধের নাম প্রদীপ কুমার চট্টোপাধ্যায়।

পুলিশ সূত্রে খবর, ৮৯ বছরের ওই বৃদ্ধ দমদমের বাসিন্দা। তিনি প্রাক্তন সরকারি কর্মচারী। তিনি অভিযোগ করেছেন, এয়ারপোর্টের কাছে একটি ব্যাঙ্কে তাঁর একটি অ্যাকাউন্ট ছিল। সেই ব্যাঙ্কে কাজ করতেন শুভঙ্কর পান্ডে। সেই সূত্রেই বৃদ্ধের সঙ্গে তার পরিচয়। দীর্ঘদিন ধরে ব্যাঙ্কে  আসা যাওয়ার ফলে ব্যাঙ্ক কর্মীর ওপর বৃদ্ধের অগাধ বিশ্বাস তৈরি হয়। বৃদ্ধকে নানা কাজে সাহায্য করতেন ওই ব্যাঙ্ক কর্মী। ব্যাঙ্ক কর্মীর কথাতেই ৩১ লক্ষ টাকার ফিক্সড ডিপোজিট করেন ওই বৃদ্ধ। এই সুযোগেই বৃদ্ধের ফিক্সড ডিপোজিটের টাকা হাতিয়ে নেয় ওই ব্যাঙ্ক কর্মী।

১৩ ফেব্রুয়ারি বিধাননগর সাইবার ক্রাইম থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন প্রদীপ বাবু। তার অভিযোগ, ভালো ভাবে মোবাইল অপারেট করতে না পারার কারণে ওই ব্যাঙ্ক কর্মী তাকে সহযোগিতার নাম করে তার মোবাইলের সব তথ্য যেমন ওটিপি , অ্যাকাউন্ট নম্বর সহ নানা তথ্য নিয়ে নেয়। পরে তিনি ব্যাঙ্কে গিয়ে জানতে পারেন তার ওই ফিক্সড ডিপোজিটের টাকা তুলে নেওয়া হয়েছে।এর পর তিনি ব্যাঙ্ক কতৃপক্ষকে গোটা বিষয়  জানান।

সূত্রের খবর, এর পরেই ওই কর্মীকে চাকরি থেকে ছাটাই করে দেওয়া হয়। বৃদ্ধের অভিযোগের ভিত্তিতে বিধান নগর সাইবার ক্রাইম থানার পুলিশ শুভঙ্কর পান্ডেকে গ্রেফতার করে। প্রতারিত হওয়া টাকার মধ্যে শুভঙ্কর আট লক্ষ টাকা ফেরত দেয় এবং দু লক্ষ টাকার একটি চেক দেয়। বাকি টাকা শেয়ার মার্কেটে রয়েছে বলে জানতে পেরেছে পুলিশ। 

বন্ধ করুন