বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > কেন্দ্রের কাছে রাজ্যের বকেয়া মাত্র ৪,২৯২ কোটি টাকা, টুইট মালব্যের
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল ছবি

কেন্দ্রের কাছে রাজ্যের বকেয়া মাত্র ৪,২৯২ কোটি টাকা, টুইট মালব্যের

  • গত বুধবার নবান্নে এক সাংবাদিক বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেন, কেন্দ্রের কাছে রাজ্যের বকেয়া প্রায় ৯৭,০০০ কোটি টাকা। এই টাকার অর্ধেক কেন্দ্র দিয়ে দিলে ৫ বছর রাজ্য সরকার জ্বালানি তেলে কর ছাড় দিয়ে দেবে।

রাজ্যের বকেয়া নিয়ে এবার তৃণমূলকে পালটা আক্রমণ করল বিজেপি। তাদের দাবি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কেন্দ্রের কাছে যে টাকা বাকি রয়েছে বলে দাবি করছেন, গোটা দেশের সমস্ত রাজ্যের তত টাকা বাকি নেই কেন্দ্রের কাছে।

এদিন এক টুইটে গত অর্থবর্ষের GST বকেয়ার খতিয়ান তুলে ধরেছেন অমিত মালব্য। সেখানে দেখা যাচ্ছে GST-র ক্ষতিপূরণ বাবদ রাজ্যের পাওনা মাত্র ৪২৯২ কোটি টাকা। দেশের সমস্ত রাজ্যের মোট বকেয়া ৫৩,৬৬১ কোটি টাকা। যা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দাবি করা শুধুমাত্র পশ্চিমবঙ্গের বকেয়া থেকে অনেক কম।

গত বুধবার নবান্নে এক সাংবাদিক বৈঠকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দাবি করেন, কেন্দ্রের কাছে রাজ্যের বকেয়া প্রায় ৯৭,০০০ কোটি টাকা। এই টাকার অর্ধেক কেন্দ্র দিয়ে দিলে ৫ বছর রাজ্য সরকার জ্বালানি তেলে কর ছাড় দিয়ে দেবে। বিজেপির দাবি, রাজ্যের দাবির কোনও ভিত্তি নেই।

মালব্যের টুইট অনুসারে গত বছর রাজ্যকে জিএসটি ক্ষতিপূরণবাবদ ৪,৫৩১ কোটি টাকা দিয়েছে কেন্দ্র। অন্যান্য ঋণ বাবদ ৬,৪২৫ কোটি টাকা দিয়েছে তারা। আর বকেয়া রয়েছে ৪,২৯২ কোটি টাকা। বিজেপির প্রশ্ন, ৯৭,০০০ কোটির হিসাব কোথা থেকে পাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

ক্ষমতায় আসার পর থেকেই রাজ্যের আর্থিক অবস্থার বেহাল দশা নিয়ে সরব হয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এর পর দফায় দফায় ঋণ নিয়েছে রাজ্য সরকার। যার ফলে রাজ্যের মোট ঋণের পরিমাণ বেড়ে হয়েছে প্রায় ৬ লক্ষ কোটি টাকা। প্রথমে UPA ও বিজেপি সরকারের কাছে রাজ্যের জন্য বিশেষ আর্থিক প্যাকেজের দাবি করলেও কর্ণপাত করেনি কেউ। যার ফলে পরিস্থিতি আরও খারাপ হয়েছে বলে দাবি শাসক শিবিরের।

 

বন্ধ করুন