বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ওই রাতে কেউ রাস্তা থেকে ছেলেকে প্রাণে মারার হুমকি দিয়েছিল, দাবি অর্জুনের মায়ের
শনিবার বিজেপির রাজ্য দফতরে পৌঁছেছে অর্জুন চৌরাসিয়ার দেহ।
শনিবার বিজেপির রাজ্য দফতরে পৌঁছেছে অর্জুন চৌরাসিয়ার দেহ।

ওই রাতে কেউ রাস্তা থেকে ছেলেকে প্রাণে মারার হুমকি দিয়েছিল, দাবি অর্জুনের মায়ের

  • ওদিকে অর্জুনের মা লছমিনা চৌরাসিয়ার দাবি, বৃহস্পতিবার রাতে বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে অর্জুনকে হুমকি দিয়েছিল কেউ। রাত ১০টা নাগাদ অর্জুনকে হুমকি দিয়ে রাস্তা থেকে কেউ বলেন, ‘খুন করে ফেলে দিয়ে আসব।’ অর্জুনের মা জানিয়েছেন, কে হুমকি দিয়েছিল দেখতে পাইনি। আমি ঘরে ছিলাম।

খুনই হয়েছেন বিজেপি নেতা অর্জুন চৌরাসিয়া। রবিবারও এই দাবি করলেন তাঁর পরিবারের সদস্যরা। পরিবারের তরফে খুনের তত্ত্বের পক্ষে একাধিক দাবি করা হয়েছে। সেই সব দাবির সত্যতা যাচাই করছে পুলিশ।

নিহতের দাদা আনন্দ চৌরাসিয়ার দাবি, বৃহস্পতিবার রাতে বাড়ির সামনে একটি অচেনা গাড়ি দেখেছিলেন তিনি। গাড়ি থেকে নেমে এক ব্যক্তিকে বনেট খুলতে দেখেন। ভোর ৪টে নাগাদ গাড়িটি এলাকা ছাড়ে। তার পর উদ্ধার হয় অর্জুনের দেহ। আনন্দ চৌরাসিয়ার দাবি, অন্য এলাকার গাড়ি অত রাতে কেন গলিতে ঢুকেছিল। যে ব্যক্তি গাড়ি থেকে নেমেছিলেন তাঁরই বা পরিচয় কী?

ওদিকে অর্জুনের মা লছমিনা চৌরাসিয়ার দাবি, বৃহস্পতিবার রাতে বাড়ির সামনে দাঁড়িয়ে অর্জুনকে হুমকি দিয়েছিল কেউ। রাত ১০টা নাগাদ অর্জুনকে হুমকি দিয়ে রাস্তা থেকে কেউ বলেন, ‘খুন করে ফেলে দিয়ে আসব।’ অর্জুনের মা জানিয়েছেন, কে হুমকি দিয়েছিল দেখতে পাইনি। আমি ঘরে ছিলাম। তবে হুমকি দিয়েছে সেটা শুনেছি।

শুক্রবার সকালে কলকাতার কাশীপুর রেল কলোনির পরিত্যক্ত রেল কোয়ার্টার থেকে অর্জুন চৌরাসিয়া নামে BJYM এর মণ্ডল সহ সভাপতির দেহ উদ্ধার হয়। ওই দিন কলকাতায় অমিত শাহকে স্বাগত জানানোর জন্য আয়োজিত অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করার কথা ছিল তাঁর। এর পরই চরম উত্তেজনা ছড়ায় এলাকায়। পুলিশ দেহ উদ্ধার করতে এলে বাধা দেন পরিজনরা। এই নিয়ে সেখানে তৃণমূল – বিজেপি খণ্ডযুদ্ধ বেঁধে যায়। বেলায় সেখানে যান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ নিজে। ঘটনাস্থলে দাঁড়িয়েই অর্জুনের মৃত্যুতে সিবিআই তদন্ত দাবি করেন তিনি।

 

বন্ধ করুন