বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > অর্পিতার ধমকে বাধ্য ছেলের মতো ওষুধ খেলেন পার্থ
পার্থ ও অর্পিতা। (HT_PRINT)

অর্পিতার ধমকে বাধ্য ছেলের মতো ওষুধ খেলেন পার্থ

  • ইডি সূত্রের খবর, শুক্রবার সন্ধ্যায় ডায়াবেটিসের ওষুধ খেতে চাইছিলেন না পার্থবাবু। ভুবনেশ্বর এইমস থেকে দেওয়া ওষুধ ইডির আধিকারিকরা তাঁর কাছে নিয়ে গেলে ফিরিয়ে দেন। একাধিক অনুরোধেও কাজ হয়নি। তখন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের দ্বারস্থ হন ইডির আধিকারিকরা।

শুক্রবার দুপুরে হাসপাতালে স্বাস্থ্যপরীক্ষা করতে এসে যিনি কান্নায় বেসামাল, সন্ধ্যাতে সেই অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের অনুরোধেই ওষুধ খেলেন পার্থ। এমনই খবর পাওয়া গিয়েছে ইডির সূত্রে। শিক্ষক নিয়োগ দুর্নীতির ২ হাই প্রোফাইল অভিযুক্তকে নিয়ে রোজই নতুন অভিজ্ঞতা হচ্ছে কলকাতায় ইডির গোয়েন্দাদের। তবে শুক্রবার বিকেলে যা হল তা এক কথায় অভিনব।

ইডি সূত্রের খবর, শুক্রবার সন্ধ্যায় ডায়াবেটিসের ওষুধ খেতে চাইছিলেন না পার্থবাবু। ভুবনেশ্বর এইমস থেকে দেওয়া ওষুধ ইডির আধিকারিকরা তাঁর কাছে নিয়ে গেলে ফিরিয়ে দেন। একাধিক অনুরোধেও কাজ হয়নি। তখন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের দ্বারস্থ হন ইডির আধিকারিকরা। অর্পিতা গিয়ে পার্থকে ওষুধ খেতে অনুরোধ করেন। এর পর রীতিমতো সুর চড়িয়ে অর্পিতা পার্থকে বলেন, ‘স্যার, ওষুধগুলো খেয়ে নিন।’ সঙ্গে সঙ্গে মন্ত্রের মতো কাজ হয়। ওষুধ খেতে রাজি হন পার্থ। হাঁফ ছেড়ে বাঁচেন ইডি আধিকারিকরা।

সিজিও কমপ্লেক্স সূত্রে জানা যাচ্ছে, এক এক সময় এক এক রকম মেজাজে দেখা যাচ্ছে পার্থ ও অর্পিতাকে। কখনও তারা খুব বাধ্যের মতো আচরণ করছেন। কখনও আবার তাদের সামলাতে নাভিশ্বাস উঠছে। আপাতত আগামী ৩ অগাস্ট পর্যন্ত ইডি হেফাজতে থাকবেন তাঁরা। ফলে এখনও ৫ দিন তাদের সামলাতে হবে ইডির গোয়েন্দাদের।

 

বন্ধ করুন