বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > টাকা কার সময় হলেই জানতে পারবেন, জোকা ESI-তে বিস্ফোরক দাবি অর্পিতার
অর্পিতাকে জোকা ইএসআই হাসপাতাল থেকে বার করে আনছেন ইডির আধিকারিকরা।

টাকা কার সময় হলেই জানতে পারবেন, জোকা ESI-তে বিস্ফোরক দাবি অর্পিতার

  • বুধবার আদালতে পেশের আগে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে পার্থ ও অর্পিতাকে হাসপাতালে নিয়ে যায় ইডি। প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে চলে ২ জনের পরীক্ষা নিরীক্ষা। এদিন হাসপাতালে ছিল কেন্দ্রীয় বাহিনীর কড়া নিরাপত্তা।

পরপর ২ দিন। হাসপাতালে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে গিয়ে ফের সংবাদমাধ্যমের সামনে মুখ খুললেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। মঙ্গলবারের পর বুধবার তিনি বলেন, ‘টাকা কার সময় হলেই জানতে পারবেন।’ এদিন দুপুরে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে অর্পিতা ও পার্থকে জোকা ESI হাসপাতালে নিয়ে যায় ইডি। তবে এদিন কোনও মন্তব্য করেননি পার্থবাবু।

বুধবার আদালতে পেশের আগে স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাতে পার্থ ও অর্পিতাকে হাসপাতালে নিয়ে যায় ইডি। প্রায় দেড় ঘণ্টা ধরে চলে ২ জনের পরীক্ষা নিরীক্ষা। এদিন হাসপাতালে ছিল কেন্দ্রীয় বাহিনীর কড়া নিরাপত্তা। মঙ্গলবার পার্থকে লক্ষ্য করে জুতো ছোড়ার ঘটনার পর এদিন আর কোনও ঝুঁকি নেয়নি তারা। বুধবার হাসপাতাল থেকে বেরনোর সময় সাংবাদিকরা অর্পিতাকে প্রশ্ন করেন, টাকা কার? জবাবে অর্পিতা বলেন, ‘সময় হলেই সব জানতে পারবেন।’

পার্থ ঘনিষ্ঠ তৃণমূল নেতা তুলেছিলেন কোটি কোটি টাকা, ED-র তদন্ত চান ভগবানপুরবাসী

বলে রাখি, এর আগে হাসপাতালে ঢোকার সময় একই দাবি করেছিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনিও বলেন, ‘টাকা আমার নয়’। এর পর থেকেই প্রশ্ন ঘুরতে শুরু করে এই বিপুল টাকা তাহলে কার? এর পর মঙ্গলবার অর্পিতাও বলেন, ‘টাকা আমার নয়’। প্রশ্ন হচ্ছে তাহলে ওই টাকা কার?

বুধবারই শেষ হচ্ছে পার্থ – অর্পিতার ইডি হেফাজতের মেয়াদ। এদিন ২ জনকে আদালতে পেশ করে ফের হেফাজতে চাইতে পারে ইডি। পার্থ ও অর্পিতার গ্রেফতারির পর থেকে এখনো পর্যন্ত টাকা ও সম্পত্তি উদ্ধারে মন দিয়েছে ইডি। তবে উদ্ধার হওয়া টাকার মালিক কে তা এখনো প্রকাশ্যে আনেনি কোনও পক্ষই। বুধবার অভিযুক্তদের আদালতে পেশের পর এব্যাপারে ইডি কোনও মন্তব্য করে কি না সেদিকে নজর রয়েছে।

রাজভবনে এলেন মুখ্যমন্ত্রী, নতুন মন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন কারা?

গত ২২ জুলাই SSC নিয়োগ দুর্নীতিতে কলকাতার ১৩ জায়গায় তল্লাশি চালায় ইডি। বিকেলে অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের টালিগঞ্জের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় প্রায় ২২ কোটি টাকা। এর পর গভীর রাতে নিজের বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয় পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে। তার পর একে একে আসে প্রকাশ্যে আসে জুটির সম্পত্তির খতিয়ান। গত বৃহস্পতিবার অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের বেলঘরিয়ার একটি ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় আরও ২৮ কোটি টাকা। সব মিলিয়ে টাকার পরিমাণ দাঁড়ায় প্রায় ৫০ কোটি। এর পর পার্থ চট্টোপাধ্যায়কে দল ও মন্ত্রিসভা থেকে বহিষ্কার করে তৃণমূল। শাসকদলের অবশ্য দাবি, এই টাকার সঙ্গে তাদের যোগ নেই।

 

বন্ধ করুন