বুধবার সন্ধ্যায় শিলিগুড়ির রাজপথ। (AFP)
বুধবার সন্ধ্যায় শিলিগুড়ির রাজপথ। (AFP)

জরুরি পরিষেবা চালু রাখতে আরও কিছু জিনিসকে বিধিনিষেধের বাইরে আনল কেন্দ্র

  • মঙ্গলবার জারি বিধিনিষেধে ATM-কে ছাড় দেওয়ার কথা উল্লেখ থাকলেও ATM-এ টাকা ভরে যে সংস্থাগুলি তাদের উল্লেখ ছিল না। ফলে বুধবার বহু ATM-এ টাকা ভরতে পারেননি কর্মীরা।

দেশব্যাপী লকডাউনের দ্বিতীয় দিনে আরও কিছু পরিষেবাকে বিধিনিষেধের বাইরে আনল কেন্দ্রীয় সরকার। বুধবার এক বিজ্ঞপ্তিতে সেকথা জানানো হয়েছে। ATM-এ টাকা ভরে যে সংস্থাগুলি তাদের গতিবিধিতে ছাড় দিয়েছে কেন্দ্র।

মঙ্গলবার জারি বিধিনিষেধে ATM-কে ছাড় দেওয়ার কথা উল্লেখ থাকলেও ATM-এ টাকা ভরে যে সংস্থাগুলি তাদের উল্লেখ ছিল না। ফলে বুধবার বহু ATM-এ টাকা ভরতে পারেননি কর্মীরা। যার জেরে বহু ATM খালি হয়ে যায়। কেন্দ্রের তরফে জানানো হয়েছে, ATM-এ যাতে পর্যাপ্ত টাকা থাকে সেব্যাপারে খেয়াল রাখবে তারা।

গতকালই কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী জানিয়েছেন, লকডাউন চলাকালীন এটিএম থেকে টাকা তোলায় যাবতীয় শুল্ক তুলে নেওয়া হয়েছে। ফলে যে কোনও ব্যাঙ্কের থেকে যে কেউ বাধাহীন ভাবে টাকা তুলতে পারবেন।

মঙ্গলবার জারি বিজ্ঞপ্তিতে পশু হাসপাতাল ও ঔষধালয়, জন ঔষধি কেন্দ্র, ব্যাঙ্কের প্রযুক্তি পরিষেবা প্রদানকারী, বীজ ও সার ও কীটনাশনের দোকান, ওষুধ উৎপাদন কেন্দ্র, ফার্মাসিউটিক্যালস, চিকিৎসার সরঞ্জাম, তাদের তৈরির সামগ্রী, খাদ্যবস্তু প্যাকেজিং করার বস্তু, খাবার ও ওষুধকে বিধিনিষেধের বাইরে রেখেছিল কেন্দ্র।


বন্ধ করুন