বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > 'জুনিয়র' দিলীপের 'ভার্বাল ডায়েরিয়া'য় বিরক্ত, প্রাক্তন সহকর্মীকে তোপ বাবুলের
বাবুল সুপ্রিয়। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)
বাবুল সুপ্রিয়। (ছবি সৌজন্য পিটিআই)

'জুনিয়র' দিলীপের 'ভার্বাল ডায়েরিয়া'য় বিরক্ত, প্রাক্তন সহকর্মীকে তোপ বাবুলের

  • মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বাবুলের ঝালমুড়ি খাওয়া প্রসঙ্গ তুলে দিলীপ ঘোষ বলেছিলেন, 'এভাবেই বাবুল ফেঁসে গিয়েছিলেন।'

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বাবুল সুপ্রিয়র ঝালমুড়ি খাওয়া প্রসঙ্গ তুলে সম্প্রতি প্রাক্তন সহকর্মীকে খোঁচা মেরেছিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি দিলীপ ঘোষ। সেই খোঁচায় বিদ্ধ হয়ে এবার পাল্টা তোপ দাগলেন বাবুল সুপ্রিয়। দিলীপ ঘোষের মন্তব্যকে 'ভার্বাল ডায়েরিয়া' আখ্যা দিয়ে দিলীপকে 'মজাদার জোকার' বললেন বাবুল সুপ্রিয়।

উল্লেখ্য, গতকালই বিজেপির বিদ্রোহী নেতাদের 'পিকনিক' প্রসঙ্গে মন্তব্য করতে গিয়ে দিলীপ ঘোষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বাবুলের ঝালমুড়ি খাওয়া প্রসঙ্গ তুলে বলেন, 'ফিশফ্রাই ডিপ্লোম্যাসি শুরু করেন দিদি। এভাবেই বাবুল ফেঁসে গিয়েছিলেন।' প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালে বাবুল তখন বিজেপি সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। সেই সময় কলকাতায় একটি সরকারি কর্মসূচির শেষে মমতার গাড়িতে চড়ে ভিক্টোরিয়া গিয়েছিলেন বাবুল। সেখানে মমতা তাঁকে ঝালমুড়ি খাইয়েছিলেন। সেই ঘটনা ঘিরে অনেক তর্ক-বিতর্ক হয়েছিল। দিলীপও সেই প্রসঙ্গ টেনে ফের একবার বাবুলকে খোঁচা মারেন।

এরপরই দিলীপের সেই কটাক্ষের জবাবে বাবুল টুইট করে লেখেন, 'এটা ভাবলে বমি পায় যে, একজন বয়স্ক মানুষ যিনি রাজনীতিতে আমার চেয়ে জুনিয়র, বারংবার ওই প্রসঙ্গ টেনে আনেন এটা জেনেই যে আমি যা করেছিলাম, তা ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোর কাজের স্বার্থেই। এমন একজন ব্যক্তির বিজেপি-র সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি পদে থাকাটা লজ্জাজনক দীর্ঘদিন ধরে আটকে থাকা ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের কাজ দ্রুত শেষ করার দায়িত্ব প্রধানমন্ত্রী আমাকে দিয়েছিলেন। সেই মতো আমি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সাহায্য চাই। কারণ, তাঁর সাহায্য ছাড়া কখনওই আটকে থাকা জমি অধিগ্রহণ সম্ভব হত না। জনতার স্বার্থে আমি বিরোধী দলনেতার সঙ্গে ১০০ ঝালমুড়ি পর্ব করতে রাজি। উনি আমাকে দলে (বিজেপি) কোণঠাসা করার জন্য বহু অপচেষ্টা করে গিয়েছেন।'

বন্ধ করুন