বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > খুনের পর থেকে হাওড়া স্টেশনেই রাত কাটাচ্ছিল সত্যেন্দ্র, চেষ্টা ছিল রাজ্য ছাড়ার
ধৃত সত্যেন্দ্র চৌধুরী।

খুনের পর থেকে হাওড়া স্টেশনেই রাত কাটাচ্ছিল সত্যেন্দ্র, চেষ্টা ছিল রাজ্য ছাড়ার

  • জেরায় সত্যেন্দ্র দাবি করেছে, গত ২২ অগাস্ট রাতে খুনের পর ২ কিশোরের দেহ রাস্তার পাশে ফেলে দেয় সে। তার পর সে ভিনরাজ্যে পালানোর ছক করতে থাকে। কিন্তু বাড়ি বা অন্য কোনও আত্মীয়ের বাড়ি গেলে পুলিশের জালে ধরা পড়ে যেতে পারে।

বাগুইআটির ২ কিশোরের খুনে মূল অভিযুক্ত সত্যেন্দ্র চৌধুরীকে জেরা করে চাঞ্চল্যকর তথ্য পেলেন গোয়েন্দারা। জানা গিয়েছে, কোনও আত্মীয় বা বন্ধুর বাড়ি নয়, খুনের পর থেকে সে রাত কাটাচ্ছিল হাওড়া স্টেশনে। জেরায় গোয়েন্দাদের এমনটাই জানিয়েছে সে।

শুক্রবার সকালে হাওড়া স্টেশন থেকে সত্যেন্দ্রকে গ্রেফতার করেন CID-র গোয়েন্দারা। এর পর অতনু দে ও অভিষেক নস্করের খুনে মূল অভিযুক্তকে বিধাননগর কমিশনারেটে নিয়ে যায় তারা। সেখানে শুরু হয় টানা জেরা। গোয়েন্দারা জানিয়েছেন, জেরায় সত্যেন্দ্র দাবি করেছে, গত ২২ অগাস্ট রাতে খুনের পর ২ কিশোরের দেহ রাস্তার পাশে ফেলে দেয় সে। তার পর সে ভিনরাজ্যে পালানোর ছক করতে থাকে। কিন্তু বাড়ি বা অন্য কোনও আত্মীয়ের বাড়ি গেলে পুলিশের জালে ধরা পড়ে যেতে পারে। কারণ আগে থেকেই অপহরণকারী হিসাবে তার নাম পুলিশকে জানিয়ে রেখেছিলেন অতনুর বাবা।

SSC-কে ডেটা রুমের নিয়ন্ত্রণ ফিরিয়ে দিতে হবে আজই, CBI-কে নির্দেশ আদালতের

জেরায় ধৃত জানিয়েছে, ২৩ অগাস্ট রাতে হাওড়া স্টেশনে চলে আসে সে। হাওড়া স্টেশনের যাত্রীদের বিশ্রাম করার জায়গায় রাত কাটাত সত্যেন্দ্র। এভাবেই ২ সপ্তাহ সে পার করেছে। সত্যেন্দ্র জেরায় জানিয়েছে, মুম্বইয়ে পালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা ছিল তার। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তা ফলপ্রসূ হয়নি। ওদিকে টাকা ফুরিয়ে আসায় পরিবারের লোকজনকে ফোন করতে বাধ্য হয় সে।

শুক্রবার সত্যেন্দ্রকে বারাসত আদালতে পেশ করেছে সিআইডি। তাকে ১৪ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন বিচারক।

 

বন্ধ করুন