বৈশাখি ও শোভন। ফাইল ছবি
বৈশাখি ও শোভন। ফাইল ছবি

পার্থর বাড়িতে বৈশাখি, শোভনের তৃণমূলে ফের নিয়ে ফের শুরু জল্পনা

  • মঙ্গলবার বেলা ১২টার কিছু পরে পার্থবাবুর নাকতলার বাড়িতে পৌঁছন শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বান্ধবী বৈশাখি।

তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে বৈশাখি বন্দ্যোপাধ্যায়ের দীর্ঘ বৈঠক ঘিরে ফের একবার শুরু হল শোভনের তৃণমূলে ফেরার জল্পনা। মঙ্গলবার দুপুরে পার্থবাবুর বাড়িতে প্রায় দেড় ঘণ্টা বৈঠক হয় দুজনের। ওদিকে বিজেপি সূত্রের খবর, তাঁকে দলের কাজে নামাতে গেলে এক ব্যক্তিতে রাজ্যসভায় পাঠাতে হবে বলে শর্ত দিয়েছেন শোভনবাবু।

মঙ্গলবার বেলা ১২টার কিছু পরে পার্থবাবুর নাকতলার বাড়িতে পৌঁছন শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বান্ধবী বৈশাখি। প্রায় দেড় ঘণ্টা পার্থবাবুর সঙ্গে একান্ত বৈঠক হয় তাঁর। বৈঠক শেষে বেরিয়ে তিনি বলেন, ‘মিল্লি আল আমিন কলেজের টিচার ইন চার্জ পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছিলেন তিনি। সেই ইস্তফা এখনো গৃহীত হয়নি। তা নিয়ে কথা বলতেই এসেছিলাম।’ বৈশাখির সঙ্গে কোনও রাজনৈতিক আলোচনা হয়নি বলে জানিয়েছেন পার্থবাবুও।

তবে কলেজের ইস্তফা গৃহীত না হওয়ায় সটান শিক্ষামন্ত্রীর বাড়িতে অধ্যাপিকা... তাও আবার দেড় ঘণ্টার একান্ত বৈঠক... ব্যাপারটার মধ্যে রাজনীতি নেই মানতে নারাজ অনেকেই। তবে ইঙ্গিতপূর্ণভাবে বৈশাখি এদিন বলেন, ‘শোভনদা তৃণমূলের ফিরবেন কি না তা তিনিই ঠিক করবেন।’

ওদিকে শোভনকে পুরভোটে ব্যাবহার করতে চায় বিজেপি। কিন্তু কিছুতেই তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করে উঠতে পারছে না বিজেপি নেতৃত্ব। বিজেপির এক শীর্ষনেতার কথায়, শোভনবাবুকে দলের কাজে ব্যবহারের জন্য এক ব্যক্তিকে রাজ্যসভায় পাঠাতে হবে শর্ত মিলেছে। যা মোটেও ভাল চোখে দেখছে না দল।

ওদিকে বৈশাখি আজ জানিয়েছেন, ‘রত্না তৃণমূলে থাকলে তিনি তৃণমূলে ফিরবেন না বলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন শোভন।’ সব মিলিয়ে শোভনকে নিয়ে দিশেহারা দুপক্ষই।

বন্ধ করুন