বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > ‘আমাদের বাড়িটা ছাড়ুন’, নবনির্বাচিত পৌরমাতা রত্নাকে তোপ শোভনের বান্ধবী বৈশাখীর
বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়, শোভন চট্টোপাধ্যায় এবং রত্না চট্টোপাধ্যায়। (ফাইল ছবি, সৌজন্য পিটিআই)

‘আমাদের বাড়িটা ছাড়ুন’, নবনির্বাচিত পৌরমাতা রত্নাকে তোপ শোভনের বান্ধবী বৈশাখীর

  • ২০১৭ সালের ৫ নভেম্বর বেহালার বাড়ি ছেড়ে গোলপার্কের এক বহুতলে ফ্ল্যাটে গিয়ে উঠেছিলেন শোভন।

কলকাতা পুরভোটে ১৩১ নম্বর ওয়ার্ডে জিতেই প্রাক্তন কাউন্সিলর শোভন চট্টোপাধ্যায়কে খওঁচা মেরেছিলেন তৃণমূল প্রার্থী রত্না চট্টোপাধ্যায়। বেহালা পূর্বের তৃণমূল বিধায়ক গতকাল জিতে দাবি করেন, এত ভোটে এই ওয়ার্ড থেকে শোভন নিজেও জিততে পারেননি। আর এই খোঁচার পরই পালটা তোপ দেগে পর্ণশ্রীর ১৩৯ ডি/৪ মহারানি ইন্দিরা দেবী রোডের বাড়িটি ফাঁকা করার হুঁশিয়ারি দিলেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। 

এদিন রত্নার জয় প্রসঙ্গে বৈশাখী সংবাদমাধ্যমকে বলেন, ‘ঠিক আছে, উনি পৌরমাতা নির্বাচিত হয়েছেন। এবার আমাদের বাড়িটা ছাড়ুন। বাড়ি না ছাড়লে এর পর মামলা করতে বাধ্য হব। আমি চাই বেহালার ছেলে শোভন চট্টোপাধ্যায়  নিজের বাড়িতে ফিরন।’ এর আগে ২০১৭ সালের ৫ নভেম্বর বেহালার বাড়ি ছেড়ে গোলপার্কের এক বহুতলে ফ্ল্যাটে গিয়ে উঠেছিলেন শোভন।

উল্লেখ্য, শোভনের পর্ণশ্রীর বাড়ির স্বত্ব সম্প্রতি হাতে পেয়েছেন বৈশাখী। ১৩৯ ডি/৪ মহারানি ইন্দিরা দেবী রোডের বাড়িটির বর্তমান মালিক বৈশাখী। শোভনের থেকে এই বাড়িটি কিনে নিয়েছেন বৈশাখী। এরপর থেকেই রত্নাকে বারংবার বাড়ি খালি করতে বলে বার্তা দিয়েছেন বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়। এদিকে গত তিন বছর ধরে শোভন চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়ের মধ্যে বিবাহ বিচ্ছেদের মামলা চলছে, এখনও যার নিষ্পত্তি হয়নি।

এদিকে ২০১৫ কলকাতা পৌরভোটে এই ওয়ার্ড থেকে ছ'হাজারের সামান্য বেশি ভোটে জয়ী হয়েছিলেন তৎকালীন কলকাতার মহানাগরিক শোভন চট্টোপাধ্যায়৷ ২০২১-এ জয়ের ব্যবধান অনেকটা বাড়িয়ে এই ওয়ার্ডে নয়া কাউন্সিলর নির্বাচিত হলেন তাঁর প্রাক্তন স্ত্রী রত্না চট্টোপাধ্যায়৷ রত্না জিতলেন দশ হাজারেরও বেশি ভোটে। 

বন্ধ করুন