ইস্টবেঙ্গল গ্যালারিতে ব্যানার (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)
ইস্টবেঙ্গল গ্যালারিতে ব্যানার (ছবি সৌজন্য ফেসবুক)

'রক্ত দিয়ে কেনা মাটি,কাগজ দিয়ে নয়', ডার্বিতেও NRC প্রতিবাদ

  • মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গলের সমর্থনে ব্যানারের ভিড়ে জ্বলজ্বল করছিল এনআরসি বিরোধী ব্যানার।

আবেগের ডার্বিতে এবার প্রতিবাদের ছোঁয়া। ঘটি-বাঙালের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বিতার মাঝেই জাতীয় নাগরিক পঞ্জিj (এনআরসি) বিরোধিতায় একইসঙ্গে সামিল হলেন মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরা। সেই প্রতিবাদের সুরে মিলেমিশে একাকার হয়ে গেল খেলার মাঠের চিরশত্রুরা।

আরও পড়ুন : প্রতিবাদের ভাষায় যুবভারতীতে মিশে গেল লাল-হলুদ ও সবুজ-মেরুন

কানায় কানায় ভরতি ছিল রবিবাসরীয় যুবভারতী। পোস্টার, ব্যানার নিয়ে এসেছিলেন দু'দলের সমর্থকরাই। ছিল টিফো। মোহনবাগান-ইস্টবেঙ্গলের সমর্থনে ব্যানারের ভিড়ে জ্বলজ্বল করছিল এনআরসি বিরোধী ব্যানার। তা সে লাল-হলুদ গ্যালারি হোক বা সবুজ-মেরুন গ্যালারি হোক, প্রতিবাদের রঙে রাঙা ছিল রবিবারের যুবভারতী।

লাল-হলুদ পতাকার মাঝে তেমনই একটি ব্যানার ছিল। তাতে লেখা - 'রক্ত দিয়ে কেনা মাটি,কাগজ দিয়ে নয়'। ভিটেমাটি হারানোর কান্না-যন্ত্রণা যেন মেশানো ছিল সেই ব্যানারে। সবুজ-মেরুন জনতার ভিড়েও তখন ধরা পড়ল একটি ব্যানার। তাতে জ্বলজ্বল করছে - 'যখন আমরা ছিলাম, তখন কাগজ ছিল না'।

টিফো-ব্যানার যেন মাঠের তীব্র রেষারেষিকে এক লহমায় মুছে দিয়েছিল। এরইমধ্যে ইস্টবেঙ্গল ব্যানারের নিচে তিন যুবকের একটি এডিট ছবিও নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়েছে। মধ্যিখানে যিনি দাঁড়িয়ে রয়েছেন, তাঁর হাতে তেরঙা। দু'পাশে মোহনবাগান ও ইস্টবেঙ্গলের পতাকা। বার্তাটা পরিষ্কার - 'আমরা একসঙ্গে আছি বন্ধু।' নেটিজেনদের বক্তব্য, হার-জিত ছাপিয়ে এবারের ডার্বিতে মন জয় করেছে এই প্রতিবাদ ব্যানারই।

বন্ধ করুন