বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > এত বাজেভাবে হেরেও লজ্জা নেই, বাংলার বদনামের চেষ্টা করছে, মোদী সরকারকে তোপ মমতার
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবি সৌজন্য এএনআই)
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। (ছবি সৌজন্য এএনআই)

এত বাজেভাবে হেরেও লজ্জা নেই, বাংলার বদনামের চেষ্টা করছে, মোদী সরকারকে তোপ মমতার

  • মুখ্যমন্ত্রীর দাবি, উত্তরপ্রদেশে কোনও আইনের শাসন নেই।

‌ভোটে হারার পরেও রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার জন্য কেন্দ্র বদনাম করার চেষ্টা করছে। বৃহস্পতিবার এভাবেই ক্ষোভ উগরে দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এই প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী জানান, বিকৃত রিপোর্ট পেশ করা হয়েছে। কারা রিপোর্ট দিয়েছে, তাঁদের বিষয় জানি। বিষয়টি এখনও বিচারাধীন। এনিয়ে কিছু বলব না।

বৃহস্পতিবার সাংবাদিক বৈঠকে মানবাধিকার কমিশন সম্পর্কে মুখ্যমন্ত্রীকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, এত বাজেভাবে হেরেও লজ্জা নেই। ‘‌কিছু গুরুত্বপূর্ণ সংস্থা দখল করে নানা রকমের চক্রান্ত চলছে। তাঁদের সম্পর্কে যত কম কথা বলা যায়, ততই ভালো।’‌ একইসঙ্গে উত্তরপ্রদেশের প্রসঙ্গ টেনে মুখ্যমন্ত্রী জানান, উত্তরপ্রদেশে তো অনেক ঘটনা ঘটেছে। কতগুলি কমিশন গঠন করা হয়েছে? যা হয়নি, তাই নিয়েও মিথ্যা প্রচার চলছে। বিহারে গিয়ে খোঁজ নিন কত মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। গঙ্গা দিয়ে মৃতদেহ বাংলায় পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে। উত্তরপ্রদেশে কোনও আইনের শাসন নেই।

উল্লেখ্য, চলতি সপ্তাহে হাইকোর্টে ৫০ পাতার রিপোর্ট পেশ করে জাতীয় মানবাধিকার কমিশন। কমিশনের রিপোর্টে বিভিন্ন জায়গায় রাজ্য সরকারকে তুলোধোনা করা হয়েছে। রিপোর্টে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা লাইন উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, চিত্ত যেথা ভয় শূন্য, উচ্চ যেথা শির। একইসঙ্গে উল্লেখ করা হয়েছে, গত ২ মাসে রবীন্দ্রনাথের মাটিতে খুন, ধর্ষণ, ভিটেছাড়া হতে হয়েছে মানুষকে। এই ধরনের উদ্বেগজনক পরিস্থিতির নিয়ন্ত্রণ না হলে তা অন্য রাজ্য ছড়িয়ে পড়বে। ভোট পরবর্তী হিংসায় সিবিআই তদন্তের প্রয়োজন। গোটা মামলার বিচার প্রক্রিয়া রাজ্যের বাইরে করতে হবে ও আদালতের পর্যবেক্ষণে সিট গঠন করতে হবে।

বন্ধ করুন