লকডাউন শুরুর পর প্রথম শুক্রবার নাখোদা মসজিদে চলছে জুম্মার নমাজ।  (PTI)
লকডাউন শুরুর পর প্রথম শুক্রবার নাখোদা মসজিদে চলছে জুম্মার নমাজ। (PTI)

সবে বরাতে মিছিল নয়, যাওয়ার দরকার নেই গোরস্থানেও, বলল ইমামদের সংগঠন

  • আগামী বুধ ও বৃহস্পতিবার সবে বরাত। তার পর দিনই জুম্মান নমাজ। সেদিনও রাজ্যের সমস্ত মসজিদ বন্ধ রাখতে অনুরোধ করেছে ইমাম অ্যাসোসিয়েশন।

সবে বরাতে মুসলিম সম্প্রদায়কে লকডাউন মেনে চলার আহ্বান করল ইমামদের সংগঠন। সোমবার পশ্চিমবঙ্গের ইমাম অ্যাসোসিয়েশনের তরফে অনুরোধ করা হয়ছে, ওই দিন রাস্তায় মিছিল বা জমায়েত করার কোনও দরকার নেই। দরকার নেই গোরস্থানে যাওয়ারও।

প্রতি বছর সবে বরাতে নিকটাত্মীয়ের কবরে গিয়ে তাঁকে স্মরণ করেন মুসলিমরা। বেঙ্গল ইমামস অ্যাসোসিয়েশনের তরফে জানানো হয়েছে, ‘সবে বরাত মুসলিমদের একটা আবেগের জায়গা। এই দিন মিছিল বা জিকির বার করেন মুসলিমরা। কিন্তু চলতি বছর লকডাউনের মধ্যে বাড়িতেই থাকুন। তাতেই সবার মঙ্গল হবে।‘

আগামী বুধ ও বৃহস্পতিবার সবে বরাত। তার পর দিনই জুম্মান নমাজ। সেদিনও রাজ্যের সমস্ত মসজিদ বন্ধ রাখতে অনুরোধ করেছে ইমাম অ্যাসোসিয়েশন।

করোনা সংক্রমণ যখন ভয়াল আকার নিচ্ছে তখনও মসজিদে নমাজ বন্ধে রাজি হয়নি ইমাম অ্যাসোসিয়েশন। আরব দেশে মসজিদে নমাজ বন্ধ হলেও এদেশে নমাজ বন্ধ করতে নারাজ ছিল তারা। যার জেরে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়তে হয় সংগঠনটিকে। অবশেষে দেশজুড়ে লকডাউন ঘোষণার পর মসজিদে নমাজ বন্ধের ঘোষণা করতে বাধ্য হয় তারা।

বন্ধ করুন