বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > 'আত্মনির্ভর সংগঠন' পুরস্কার এবার বাংলার মুকুটে, ব্যাকফুটে উত্তরপ্রদেশ, গুজরাত
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, মুখ্যমন্ত্রী (PTI)

'আত্মনির্ভর সংগঠন' পুরস্কার এবার বাংলার মুকুটে, ব্যাকফুটে উত্তরপ্রদেশ, গুজরাত

  • গুজরাত ও উত্তরপ্রদেশকে পেছনে ফেলে দিয়ে বাংলার মহিলা স্বনির্ভর গোষ্ঠীকে এই বিশেষ সম্মান দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। খোদ কেন্দ্রীয় সরকার এই অবদানকে স্বীকৃতি দিচ্ছে।

৮ইমার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস। আর ওই দিনই বাংলার টুপিতে যুক্ত হবে নতুন পালক। দিল্লির বিজ্ঞান ভবনে বাংলার হাতে তুলে দেওয়া হবে ‘আত্মনির্ভর সংগঠন ’পুরষ্কার। কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্যোগে এই পুরষ্কার দেওয়া হবে। বাংলার একটি সেলফ হেল্প গ্রুপ কো অপারেটিভ সোসাইটির হাতে এই পুরষ্কার দেওয়া হবে। মহিলাদের নিয়ে স্বরিনর্ভর গোষ্ঠী পরিচালনা করা ও সমবায় ক্ষেত্রতে বিশেষ অবদানের জন্য এই পুরষ্কার দেওয়া হচ্ছে। বীরভূম জেলার নিত্য সঙ্ঘ মহিলা সেলফ হেল্প গ্রুপ কো অপারেটিভ সোসাইটি লিমিটিডের হাতে এই পুরষ্কার তুলে দেওয়া হবে। এদিকে গুজরাত ও উত্তরপ্রদেশকে পেছনে ফেলে দিয়ে বাংলার মহিলা স্বনির্ভর গোষ্ঠীকে এই বিশেষ সম্মান দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। খোদ কেন্দ্রীয় সরকার এই অবদানকে স্বীকৃতি দিচ্ছে।

 সূত্রের খবর, এই পুরষ্কার প্রাপকদের তালিকায় ছত্তিশগড়, রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, অসম, তেলঙ্গানা, পশ্চিমবঙ্গ সহ নানা রাজ্যের নাম রয়েছে। ইতিমধ্যেই এই স্বীকৃতির খবরে পঞ্চায়েত দফতরের আধিকারিকরা যথেষ্ট খুশি। এই স্বীকৃতির জেরে মুখ্যমন্ত্রীর অবদানকেও স্বীকার করেছেন অনেকেই। অনেকের মতে, বাংলায় মহিলাদের ক্ষমতায়ন, স্বনির্ভর গোষ্ঠী তৈরির মাধ্যমে প্রত্যন্ত গ্রামের মহিলাদেরও আর্থিক স্বনির্ভরতার স্বপ্ন দেখাচ্ছে রাজ্য সরকার। হাতে কলমে সেই কাজও হচ্ছে গ্রামে গ্রামে। আর সেই কাজই এবার জাতীয় ক্ষেত্রে স্বীকৃতি পাচ্ছে। 

 

বন্ধ করুন