দেবেশ রায় (১৯৩৬-২০২০)
দেবেশ রায় (১৯৩৬-২০২০)

সাহিত্যলোকে নক্ষত্রপতন, প্রয়াত দেবেশ রায়

  • বৃহস্পতিবার রাত ১০.৫০ মিনিটে কলকাতার এক বেসরকারি নার্সিংহোমে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর।

বাংলা সাহিত্যজগতে ইন্দ্রপতন। প্রয়াত কালজয়ী কথা সাহিত্যিক দেবেশ রায়। বৃহস্পতিবার রাত ১০.৫০ মিনিটে কলকাতার এক বেসরকারি নার্সিংহোমে তাঁর মৃত্যু হয়েছে। বয়স হয়েছিল ৮৪ বছর। 

তিনি দীর্ঘ দিন বার্ধক্যজনিত বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছিলেন। তাঁর ছেলে সস্ত্রীক আমদাবাদের বাসিন্দা। লকডাউনের কারণে তিনি শহরে উপস্থিত ছিলেন না। আপাতত তাঁর পৌঁছানোর অপেক্ষায় রয়েছেন প্রয়াত সাহিত্যিকের ঘনিষ্ঠজন।

১৯৩৬ সালের ১৭ ডিসেম্বর পূর্ব বঙ্গের পাবনা জেলার বাগমারা গ্রামে তাঁর জন্ম। শৈশবেই জন্মভূমি ছেড়ে উত্তরবঙ্গের বাসিন্দা হন তিনি। সেখানেই কেটেছে কৈশোর ও যৌবন।বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ার সময় প্রত্যক্ষ রাজনীতির সঙ্গে তিনি জড়িয়ে পড়েন। রাজবংশী ভাষায় তাঁর ছিল অনায়াস বিচরণ। কলকাতা শহরে ট্রেড ইউনিয়ন আন্দোলনের সঙ্গেও তিনি যুক্ত ছিলেন। 

দেবেশ রায়ের প্রথম প্রকাশিত উপন্যাস যযাতি। অন্যান্য স্মরণীয় বইয়ের মধ্যে রয়েছে মানুষ খুন করে কেন (১৯৭৬), মফস্বলী বৃত্তান্ত (১৯৮০), সময় অসময়ের বৃত্তান্ত (১৯৯৩), তিস্তা পাড়ের বৃত্তান্ত (১৯৮৮), লগন গান্ধার (১৯৯৫) ইত্যাদি। এর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় ও সমাদৃত উপন্যাস তিস্তা পাড়ের বৃত্তান্তে উত্তরবঙ্গের ভূমিহীন মানুষের যাপন-প্রেক্ষিতে তাঁর রাজনৈতিক চিন্তাধারার সুস্পষ্ট ছাপ লক্ষ্য করা যায়। ১৯৯০ সালে এই উপন্যাসের সুবাদেই তিনি সাহিত্য অ্যাকাডেমি পুরস্কার পান।

বরাবরই ব্যতিক্রমী সাহিত্যকীর্তির জন্য দেবেশ রায় পাঠকের হৃদয়ে স্থান করে নিয়েছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে সমগ্র সাহিত্যসমাজে গভীর শোক নেমে এসেছে।

বন্ধ করুন