বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > হাতিয়ার গ্রিটিংস কার্ড, অভিনব কায়দায় ভবানীপুরের ভোটারদের মন জয়ের কৌশল মমতার
ভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে তৃণমূলের প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (HT_PRINT)
ভবানীপুর বিধানসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনে তৃণমূলের প্রার্থী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (ছবি সৌজন্যে পিটিআই) (HT_PRINT)

হাতিয়ার গ্রিটিংস কার্ড, অভিনব কায়দায় ভবানীপুরের ভোটারদের মন জয়ের কৌশল মমতার

  • আর কয়েকদিন পরই অনুষ্ঠিত হবে ভবানীপুর উপনির্বাচন। মুখ্যমন্ত্রী পদে থাকতে এই নির্বাচনে জয় মমতার জন্য আবশ্যক।

আর কয়েকদিন পরই অনুষ্ঠিত হবে ভবানীপুর উপনির্বাচন। মুখ্যমন্ত্রী পদে থাকতে এই নির্বাচনে জয় মমতার জন্য আবশ্যক। নিজেকে 'ঘরের মেয়ে' হিসেবে তুলে ধরে ভবানীপুরে জয় নিয়ে আত্মবিশ্বাসী মমতা। যদিও প্রচারে কোনও ফাঁক রাখছেন না তৃণমূল নেত্রী। তিনি নিজে জনসভা করছেন। তাঁর মন্ত্রিসভার সদস্য ফিরহাদ হাকিম, সুব্রত মুখোপাধ্যায়ও মমতার হয়ে প্রচার করতে পথে নেমেছেন। এই পরিস্থিতিতে ভোটারদের মনে নিজের ছাপ ফেলতে অভিনব জনসংযোগের পথে হাঁটলেন তৃণমূলনেত্রী।

ভবানীপুরের বাসিন্দাদের উদ্দেশে একটি শুভেচ্ছাপত্র পাঠিয়ে ভোটারদের মন জয় করার চেষ্টা করলেন মমতা। নীল-সাদা কার্ডে রয়েছে ভবানীপুরের প্রার্থী মমতার ছবি। শুভেচ্ছা বার্তায় মমতা নিজেকে ঘরের মেয়ে বলে উল্লেখ করেন। বাংলা এবং ইংরেজি ভাষায় বার্তা লেখা কার্ডে।

কার্ডে লেখা, 'ভবানীপুর কেন্দ্রকে ঘিরেই আমার পথচলা শুরু। আজ আমি বাংলার ভবানীপুর কেন্দ্রের জন্য। আবার উপনির্বাচন আসছে ৩০ সেপ্টেম্বর। আপনাদের ভোটের মাধ্যমে আপনাদের শুভেচ্ছা পেলে তবেই উন্নয়নের জয়যাত্রা বজায় রাখতে পারব। আপনাদের প্রত্যেকটি ভোট অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সবরকম পরিস্থিতিতে আপনারাই আমার ভরসা।' পাশাপাশি সব ভোটারের কাছে পৌঁছতে না পারায় দুঃখপ্রকাশ করেন মমতা।

কোভিড আবহে ব়্যালি করতে পারেননি উপনির্বাচনের প্রার্থীরা। ছোট ছোট সভা করে এলাকাভিত্তিক প্রচার সারতে হয়েছে মমতাকেও। এই আবহে বিধানসভা কেন্দ্রের সকলের কাছে পৌঁছে যেতে গ্রিটিংস কার্ডের সাহায্য নিলেন মমতা। এদিকে রবিবার মমতার সঙ্গে ভবানীপুরের প্রচারে উপস্থিত থাকবেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ও। মনে করা হচ্ছে, রাজ্যে আসন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগের কথা মাথায় রেখে এখানেই প্রচার শেষ করা হতে পারে তৃণমূলের তরফে।

বন্ধ করুন