বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > BJP Durga Puja: পুজো নিয়ে পরিকল্পনা বদল বঙ্গ বিজেপির, মাতৃবন্দনা নিয়ে কী ভাবছেন সুকান্তরা?
দুর্গাপুজো (প্রতীকী ছবি)

BJP Durga Puja: পুজো নিয়ে পরিকল্পনা বদল বঙ্গ বিজেপির, মাতৃবন্দনা নিয়ে কী ভাবছেন সুকান্তরা?

  • পুজো আয়োজন নিয়ে মতবিরোধ রয়েছে দলের অন্দরে। দলের সর্বভারতীয় সহসভাপতি দিলীপ ঘোষ দলের উদ্যোগে পুজোর বিরোধী। তবে দলের একাংশই চাইছেন, এবারও পুজো হোক বড় করে।

প্রথমে নিয়মরক্ষা করার জন্য পুজো করার কথা ভাবা হলেও আচমকাই সব পরিকল্পনা বদলে গেল। তৃতীয়বারের মতো বঙ্গ বিজেপি দুর্গাপুজো করতে চলেছে এবছর। প্রাথমিক ভাবে জাঁকজমক ভাবে সেই পুজো করার কোনও পরিকল্পনা ছিল না সুকান্ত মজুমদারদের। তবে রবিবার কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষকদের বৈঠকে পুজো নিয়ে আলোচনা হওয়ার সময় অনেকেই দাবি করেন, পুজো হোক বড় করে।

দুর্গাপুজো ইউনেস্কোর কালচারাল হেরিটেজ তকমা পেয়েছে। এই আবহে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ইতিমধ্যেই শোভাযাত্রা করেছেন দুর্গাপুজো নিয়ে। এই পরিস্থিতিতে ইজেডসিসি-তে বিজেপির আয়োজিত দুর্গাপুজোও জাঁকজমক ভাবে করতে চাইছেন গেরুয়া শিবিরের একাংশ। পুজোর উদ্বোধন করাতে অমিত শাহ বা জেপি নড্ডাকে আনতে চাইছেন তাঁরা। এর আগে ২০২০ সালে যখন সল্টলেকে ইজেডসিসিতে প্রথমবার বিজেপি পুজোর আয়োজন করেছিল, তখন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ভার্চুয়ালি সেই পুজোর উদ্বোধন করেছিলেন।

এদিকে সূত্রের খবর, পুজো আয়োজন নিয়ে মতবিরোধ রয়েছে দলের অন্দরে। দলের সর্বভারতীয় সহসভাপতি দিলীপ ঘোষ দলের উদ্যোগে পুজোর বিরোধী। তবে তৃণমূলের নেতারা যেভাবে বিভিন্ন ক্লাবের সঙ্গে জড়িত, বিজেপি নেতাদের ক্ষেত্রে সেই কথাটা খাটে না। কলকাতার বিভিন্ন পুজোর সঙ্গে জড়িয়ে আছে তৃণমূলের তাবড় সব নেতাদের নাম। এক একটি পুজোর পরিচিতি শাসকদেল নেতার নামেই। তবে বিজেপি নেতাদের একাংশ চান দলের পুজোর সঙ্গেই তাঁরা জড়িয়ে থাকবেন। তবে এখানেই প্রশ্ন উঠছে, তৃণমূলের মতো বিজেপির নেতারা কি তাহলে জনসংযোগের কোনও চেষ্টা করবেন না? মূলত জনসংযোগের অভাবের কারণেই কোনও ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত নন বিজেপির বহু নেতা। তাই কোনও পুজোর থেকে আমন্ত্রণ পান না তাঁরা। কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব এনে পুজো উদ্বোধন করে সংবাদমাধ্যমে তা প্রচার তো করা যাবে, তবে তাতে জনসংযোগ বাড়বে কি? এদিকে রবিবারের বৈঠকে সংগঠন মজবুত করার বার্তা দিয়েছেন কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক সুনীল বনসল থেকে মঙ্গল পাণ্ডে। এই পরিস্থিতি পুজো নিয়ে বঙ্গ বিজপির মতবিরোধ প্রকাশ্যে চলে এলে তা অস্বস্তির হবে দলের জন্য।

বন্ধ করুন