বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > 'প্রথম একাদশে নেই বাংলার ছেলেটা...', বাবুলকে খোঁচা প্রাক্তন সতীর্থ অনুপমের
তৃণমূল নেতা বুবল সুপ্রিয় (ফাইল ছবি: পিটিআই) (PTI)
তৃণমূল নেতা বুবল সুপ্রিয় (ফাইল ছবি: পিটিআই) (PTI)

'প্রথম একাদশে নেই বাংলার ছেলেটা...', বাবুলকে খোঁচা প্রাক্তন সতীর্থ অনুপমের

  • দলবদল নিয়ে বাবুল বলেছিলেন, 'প্রথম একাদশে খেলতে চাই'। আর সেই উক্তির রেষ টেনেই তাঁকে খোঁচা মারলেন বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা। 

দীর্ঘদিন কেন্দ্রীয়মন্ত্রী ছিলেন আসানসোলের প্রাক্তন সাংসদ বুবল সুপ্রিয়। তবে সেই পদ খোয়ানোর পরপরই দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দেন। দলবদল নিয়ে বাবুল বলেছিলেন, 'প্রথম একাদশে খেলতে চাই'। সেই সময় জল্পনা তৈরি হয়েছিল যে বাবুলকে হয়ত রাজ্যের মন্ত্রী করবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তবে বিধানসভা উপনির্বাচনে বাবুলকে প্রার্থী করা তো দূরে থাক প্রচারক হিসেবেও নামায়নি তৃণমূল। এরপর রাজ্যসভা থেকে অর্পিতা ঘোষ পদত্যাগ করলে সেখানেও একটি সম্ভাবনা তৈরি হয়েছিল বাবুলের জন্য। তবে তাতেও জল ঢেলে তৃণমূল জানায়, সেই আসনে তারা গোয়ার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ও সদ্য দলের সর্বভারতীয় সহসভাপতির পদ পাওয়া লুইজিনহো ফেলেইরোকে মনোয়ন দেবে। আর এরপরই বাবুলকে কটাক্ষের বাণে বিঁধলেন একদা তাঁর সতীর্থ থাকা বিজেপি নেতা অনুপম হাজরা।

আপাতত গোয়ায় দলের হয়ে প্রচারে পাঠানো হয়েছে বাবুল সুপ্রিয়কে। এই আবহে আসানসোলের প্রাক্তন সাংসদরে কটাক্ষ করে বিজেপির কেন্দ্রীয় সহ-সম্পাদক অনুপম হাজরা রবিবার ফেসবুকে একটি পোস্ট লেখেন। সেই পোস্টে লেখা, 'গোয়ার মেয়েটা গোয়ার ছেলেটাকে রাজ্যসভায় পাঠাল, অথচ প্লেয়িং ১১-এ খেলতে চাওয়া বাংলার ছেলেটাকে মাঠের বাইরে বসিয়া রাখল। ভারি অন্যায়। তীব্র প্রতিবাদ জানাই।' উল্লেখ্য, শনিবারই রাজ্যসভার আসনের জন্য সদ্য তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দেওয়া গোয়ার প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লুইজিনহো ফেলেইরোর নাম ঘোষণা করে তৃণমূল। মনে করা হচ্ছে এই নিয়ে নাম না করে বাবুলকে বিঁধেছেন অনুপম হাজরা।

গত ২৪ অক্টোবর প্রথমবার তৃণমূলের হয়ে মাঠে নামেন বাবুল সুপ্রিয়। আর প্রথম ম্যাচেই তাঁকে নামতে হয় প্রতিপক্ষের মাঠে। তৃণমূলের হয়ে প্রথম রাজনৈতিক 'অ্যাসাইনমেন্টে' গোয়ায় যান বাবুল। উল্লেখ্য, প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় কয়েকদিন আগেই ডেরেক, অভিষেকের হাত ধরে তৃণমূলে যোগ দেন। নতুন দলে তাঁকে কোন দায়িত্ব দেওয়া হবে এনিয়ে নানা কথা উঠেছে বার বারই। এই আবহে গোয়ায় দলের শাখা বিস্তারে বাবুলকে কাজে লাগাচ্ছে তৃণমূল। আর তা নিয়েই বাবুলকে খোঁচা অনুপমের।

বন্ধ করুন