বাংলা নিউজ > বাংলার মুখ > কলকাতা > রাজ্যপালকে সরাসরি আক্রমণ করলেন জয়প্রকাশ মজুমদার, তোলপাড় রাজনীতি
জয়প্রকাশ মজুমদার। ফাইল ছবি

রাজ্যপালকে সরাসরি আক্রমণ করলেন জয়প্রকাশ মজুমদার, তোলপাড় রাজনীতি

  • আর জয়প্রকাশ মজুমদারের এই সমালোচনা তৃণমূল কংগ্রেসের কাছাকাছি আসা বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

রাজ্যপাল–মুখ্যমন্ত্রীর দ্বৈরথের মধ্যেই রাজ্য প্রশাসনের পাশে দাঁড়ালেন বিক্ষুব্ধ বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার। তিনি এবার রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে চোখা চোখা বাক্যবাণে বিদ্ধ করলেন বিজেপি থেকে সাময়িক বরখাস্ত নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার। সদ্য রাজ্যপালকে কড়া ভাষায় আক্রমণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর জয়প্রকাশ মজুমদারের এই সমালোচনা তৃণমূল কংগ্রেসের কাছাকাছি আসা বলেই মনে করছেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।

ঠিক কী টুইট করেছেন জয়প্রকাশ?‌ শুক্রবার রাজ্যপালের উদ্দেশ্যে টুইটে তিনি লেখেন, ‘‌রাজ্য প্রশাসনের সঙ্গে আপনার সংঘাতে রাজ্যের কি কোনও লাভ হচ্ছে? মিডিয়ার সামনে মুখ খুলে, টুইট করে কি সমস্যার সমাধান সম্ভব? আপনার অবস্থানে শাসকদল কি সহানুভূতি পাচ্ছে না? রাজ্যবাসী রাজ্যপালের থেকে রাষ্ট্রনেতাসুলভ আচরণ প্রত্যাশা করেন।’‌

এই টুইট সমালোচনার পরই কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিম সরাসরি সমর্থন করেছেন জয়প্রকাশ মজুমদারকে। তিনি বলেন, ‘‌জয়প্রকাশ মজুমদার যাই বলেছেন, সেটাই তৃণমূল কংগ্রেসের বক্তব্য। তিনি ঠিক বলেছেন।’‌ এই সমর্থনের পরই জল্পনা শুরু হয়ে গিয়েছে। তৃণমূল কংগ্রেসের কাছাকাছি আসতে চাইছেন জয়প্রকাশ। এমনকী যোগ দিতে পারেন শাসকদলে বলেও গুঞ্জন।

এই বিষয়ে সংবাদমাধ্যমে জয়প্রকাশ বলেন, ‘‌আমি বিক্ষুব্ধ বিজেপি নেতা নই। আগে বিজেপি নেতা ছিলাম। এখন রাজনৈতিক নেতা। আমি রাজ্যপালের উদ্দেশেই টুইটটা করেছি। পশ্চিমবঙ্গে অনেক সমস্যা রয়েছে। তার আরেক অ্যাডেড সমস্যা হল রাজ্য–রাজ্যপাল মতবিরোধ। রাজ্যপাল এই লড়াইটা এমন একটা জায়গায় নিয়ে গিয়েছেন, সেটা রাস্তার লড়াইয়ে পরিণত হয়েছে। রাজ্যপাল পদের একটা মর্যাদা থাকে। যদি রাজ্যপাল কোনও সমস্যা দেখেন, সেটাকে কীভাবে মেটানো যায়, সেটা ভাবুন।’‌

বন্ধ করুন