মুকুল রায় ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়। ফাইল ছবি
মুকুল রায় ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়। ফাইল ছবি

বিজেপির মিছিল ঘিরে ধুন্ধুমার টালিগঞ্জে, গ্রেফতার কৈলাস - মুকুল

  • কৈলাস ও মুকুল গাড়ি থেকে নামতেই গ্রেফতার করা হয় তাদের। ঘটনার সময় ২ বিজেপি নেতার নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে বচসা বেঁধে যায় পুলিশকর্মীদের।

টালিগঞ্জে CAA-র সমর্থনে বিজেপির মিছিল ঘিরে ধুন্ধুমার। বিজেপি কর্মীদের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়ালেন পুলিশকর্মীরা। গ্রেফতার মুকুল রায় ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়। পুলিশের দাবি মিছিলের অনুমতি ছিল না।

শুক্রবার দুপুর ২টোয় CAA-র সমর্থনে টালিগঞ্জ ফাঁড়ি থেকে হাজরা মোড় পর্যন্ত অভিনন্দন যাত্রা ছিল বিজেপির। সেই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের জন্য বেলা ১২টা থেকেই টালিগঞ্জ ফাঁড়ির সামনে জড়ো হতে শুরু করেন বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা। আগে থেকেই এলাকায় মোতায়েন ছিল বিশাল পুলিশ বাহিনী। ছিলেন কলকাতা পুলিশের আধিকারিকরাও।

বিজেপির অভিযোগ, মিছিলে যোগদানের জন্য কৈলাস বিজয়বর্গীয় ও মুকুল রায়ের গাড়ি পৌঁছতেই গাড়ি ঘিরে ধরেন পুলিশকর্মীরা। কৈলাস ও মুকুল গাড়ি থেকে নামতেই গ্রেফতার করা হয় তাদের। ঘটনার সময় ২ বিজেপি নেতার নিরাপত্তারক্ষীদের সঙ্গে বচসা বেঁধে যায় পুলিশকর্মীদের।

দুই নেতা গ্রেফতার হতেই উত্তেজনা ছড়ায় উপস্থিত বিজেপি কর্মী সমর্থকদের মধ্যে। পুলিশকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন তাঁরা। এর পর টালিগঞ্জ ফাঁড়ির সামনে বসে পড়েন বিজেপি কর্মীরা। তাদের সেখান থেকে গ্রেফতার করে বাসে তোলে পুলিশ। পুলিশকর্তাদের দাবি, বিনা অনুমতিতে মিছিল করার চেষ্টা করছিল বিজেপি। তাই বাধা দিয়েছে পুলিশ। গ্রেফতার করা হয়েছে মুকুল রায় ও কৈলাস বিজয়বর্গীয়কে।

গ্রেফতারির নিন্দা করে বিজেপি নেতা কৈলাস বিজয়বর্গীয় জানিয়েছেন, ‘পশ্চিমবঙ্গে CAA-র বিরোধিতায় মিছিল হতে পারে, কিন্তু পক্ষে হতে পারে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের একনায়কতান্ত্রিক অগণতান্ত্রিক শাসনকে ধিক্কার জানাই। আমরা রাজনৈতিক ভাবে এর জবাব দেব। পশ্চিমবঙ্গে সামন্ততান্ত্রিক শাসন চলছে।‘


বন্ধ করুন